২২ Jul ২০২৪, ১২:০০ অপরাহ্ন, ১৫ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি, সোমবার, ৭ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নোটিশ
জরুরী ভিত্তিতে কিছুসংখ্যক জেলা-উপজেলা প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে যোগাযোগ- ০১৭১২৫৭৩৯৭৮
আগৈলঝাড়ায় ভোটে হেরে বিজয়ী প্রার্থীর সমর্থকদের উপর হামলা, আহত ২

আগৈলঝাড়ায় ভোটে হেরে বিজয়ী প্রার্থীর সমর্থকদের উপর হামলা, আহত ২

বি এম মনির হোসেন সিনিয়র স্টাফ রিপোর্টারঃ-

বরিশালের আগৈলঝাড়া উপজেলা নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী ফুটবল মার্কার সমর্থকদের উপর হামলা চালায় পরাজিত মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী মলিনা রানী রায়ের ছেলে সবুজ হালদার। এই হামলায় দুইজন আহত হয়েছে। আহতদেরকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।সোমবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে উপজেলার রাজিহার ইউনিয়নের রামানন্দেরআঁক বাজারে উপজেলা নির্বাচনে পরাজিত প্রার্থী উপজেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সাবেক মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মলিনা রানী রায়ের ছেলে সবুজ হালদার বিজয়ী মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান হাফিজা ইয়াসমিনের সমর্থক রামানন্দেরআঁক গ্রামের যতিন্দ্র নাথ মন্ডলের ছেলে দ্বিজেন্দ্র নাথ মন্ডল (৬৮) ও তার ছেলে দেবাশিষ মন্ডলকে (২৭) প্রজাপতি প্রতীকে ভোট না দেওয়ায় তাদের পিটিয়ে আহত করা হয়। হাসপাতালে ভর্তি দ্বিজেন্দ্র নাথ মন্ডল আজকের ক্রাইম নিউজ এর প্রতিনিধি বি এম মনির হোসেনকে বলেন, আমরা হিন্দু হয়ে কেন মুসলিম প্রার্থীকে ভোট দিলাম এই অপরাধে সোমবার রাতে রামানন্দেরআঁক বাজার থেকে বাড়ি ফেরার সময় সাবেক মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মলিনা রানী রায়ের ছেলে সবুজ হালদার আমার ছেলে এবং আমাকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। এসময় তার মা প্রজাপতি প্রতিকের প্রার্থী মলিনা রানীয় পাশেই দাড়ানো ছিল। পরে স্থানীয়রা আমাদেরকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। বিজয়ী প্রার্থী হাফিজা ইয়াসমিন বলেন, আমার প্রতিদ্বন্দি পরাজিত প্রার্থী মলিনা রানী রায়ের ছেলে নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় আমার দুই কর্মীকে মারধর করে আহত করেছে। তারা আগৈলঝাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিচ্ছে। এ ঘটনায় দোষীদের দ্রুত বিচারের দাবি জানাচ্ছি। এব্যাপারে সবুজ হালদারের মা সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মলিনা রানী রায়ের মোবাইলে একাধিকবার ফোন দিলে ফোন রিসিভ না করায় তার বক্তব্য পাওয়া যায় নাই।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2019