শুক্রবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ১০:১১ অপরাহ্ন

Notice :
প্রকাশ্যে ধূমপান করে তোপের মুখেপড়া এক তরুণীর ভিডিও ভাইরাল।চরমোনাই পীরের ওয়াজ মাহফিল বাতিল।বিএনপির কোনো নেতাকর্মী যেন পদ্মা সেতু পার না হয় বললেন শাজাহান খান।জাতীয় পরিচয়পত্রের তথ্য অনুযায়ী, ভাতাপ্রাপ্ত প্রায় দুই হাজার বীর মুক্তিযোদ্ধার বয়স ৫০–এর নিচে।করোনা আক্রান্ত কনের অভিনব পদ্ধতিতে বিয়ে (ভিডিও)আবাসিক হোটেলে জনপ্রিয় অভিনেত্রীর ঝুলন্ত মরদেহ।পুলিশে হঠাৎ বড় রদবদল।ইউটিউবে যাত্রা শুরু করছেন মিজানুর রহমান আজহারী।
সর্বশেষ সংবাদ :
তামিমা কার, ফয়সালা হবে আদালতে। আজকের ক্রাইম-নিউজ বিএনপির বিভাগীয় সমাবেশ, ১৮ রুটে বাস চলাচল বন্ধ। আজকের ক্রাইম-নিউজ বনানীতে বিএনপির মশাল মিছিলে পুলিশের হামলার অভিযোগ। আজকের ক্রাইম-নিউজ এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষা ঘোষিত সময়ে হচ্ছে না। আজকের ক্রাইম-নিউজ আগৈলঝাড়ায় অর্ধ কোটি টাকা ব্যয়ে গোডাউন সড়ক নির্মাণের উদ্বোধন। আজকের ক্রাইম-নিউজ জুসের সাথে ওষুধ খাইয়ে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ, কারাগারে পুলিশ সদস্য। আজকের ক্রাইম-নিউজ গাঁজা বেচে মাসে ৪ কোটি টাকা আয়। আজকের ক্রাইম-নিউজ রমজানের তারিখ ঘোষণা করল ইন্দোনেশিয়া। আজকের ক্রাইম-নিউজ মেয়েকে ধর্ষণের পর মাকেও শারীরিক সম্পর্কের প্রস্তাব। আজকের ক্রাইম-নিউজ প্রেমিক-প্রেমিকার একসঙ্গে বিষপান, প্রেমিকের মৃত্যু। আজকের ক্রাইম-নিউজ
ঝালকাঠি পৌর এলাকার কৃষ্ণকাঠী মনু সড়কের বেহাল দশা চরম ভোগান্তিতে হাজার হাজার মানুষ। আজকের ক্রাইম-নিউজ

ঝালকাঠি পৌর এলাকার কৃষ্ণকাঠী মনু সড়কের বেহাল দশা চরম ভোগান্তিতে হাজার হাজার মানুষ। আজকের ক্রাইম-নিউজ

ঝালকাঠি প্রতিনিধি : ঝালকাঠি পৌর শহরের ৩ নং ওয়ার্ডের কৃষ্ণকাঠী এলাকার মনু সড়কের বেহাল দশা। একটু বৃষ্টি হলে এই সড়ক দিয়ে মানুষ পায়ে হেঁটে চলতে পারে না। বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে ওই সড়ক দিয়ে পায়ে হাটা তো দূরের কথা গাড়িতে ও পৌর এলাকার লোকজন চলাচল করতে পারে না। এক বছর আগে এই সড়কে হাঁটু পর্যন্ত পানি জমে ছিল। তখন একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দেখে।ঝালকাঠির সাবেক জেলা প্রশাসক মোঃ হামিদুল হক পৌর মেয়রের সাথে যোগাযোগ করে রাস্তাটি সংস্কারের কথা বললে পৌর মেয়র ৩ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোঃ দুলাল হাওলাদারকে রাস্তাটি সংস্কার করতে বলেন। ওই সময় কিছু পচা রাবিশ দিয়ে রাস্তাটি সংস্কার করেন কাউন্সিলর দুলাল। এক বছর যেতে না যেতেই পচা রাভিস গুলো মাটির সাথে মিলে যায় এবং বড় বড় গর্ত সৃষ্টি হয়। বর্ষা মৌসুমে এই সড়ক দিয়ে জনগণ যাতায়াত করতে পারেনা। ওই এলাকার বাসিন্দাদের অভিযোগ আমরা সকল পৌর সেবা থেকে বঞ্চিত । সন্ধ্যার পরে পোস্টে আলো জ্বলে না কাউন্সিলর কে বললে সে কোন গুরুত্ব দেয় না। স্থানীয়রা আরো বলেন বর্তমান পৌর মেয়র ক্ষমতায় আসার পরে কৃষ্ণকাঠী এলাকায় কোনো উন্নয়নমূলক কাজ হয়নি । প্রথম শ্রেণীর পৌরসভায় বসবাস করে আমাদের ভোগান্তির শেষ নেই।আমাদের রাস্তাগুলোর যে অবস্থা বর্ষা মৌসুমে আমরা রাস্তায় চলাচল করতে পারিনা। রাস্তায় বড় বড় গর্তে পানি জমে থাকে।
এ ব্যাপারে কাউন্সিলর মোঃ দুলাল হাওলাদারকে একাধিকবার ফোন করেও তাকে পাওয়া যায়নি।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2019
Bengali English