সোমবার, ০১ মার্চ ২০২১, ০৭:২৬ পূর্বাহ্ন

Notice :
প্রকাশ্যে ধূমপান করে তোপের মুখেপড়া এক তরুণীর ভিডিও ভাইরাল।চরমোনাই পীরের ওয়াজ মাহফিল বাতিল।বিএনপির কোনো নেতাকর্মী যেন পদ্মা সেতু পার না হয় বললেন শাজাহান খান।জাতীয় পরিচয়পত্রের তথ্য অনুযায়ী, ভাতাপ্রাপ্ত প্রায় দুই হাজার বীর মুক্তিযোদ্ধার বয়স ৫০–এর নিচে।করোনা আক্রান্ত কনের অভিনব পদ্ধতিতে বিয়ে (ভিডিও)আবাসিক হোটেলে জনপ্রিয় অভিনেত্রীর ঝুলন্ত মরদেহ।পুলিশে হঠাৎ বড় রদবদল।ইউটিউবে যাত্রা শুরু করছেন মিজানুর রহমান আজহারী।
সর্বশেষ সংবাদ :
দুই গাঁজাসেবীকে আটকের পর তাবলীগে পাঠালেন ওসি। আজকের ক্রাইম-নিউজ বরিশাল সফর আসছে নরেন্দ্রমোদি প্রশাসনের ব্যাপক প্রস্তুতি। আজকের ক্রাইম-নিউজ আগৈলঝাড়ায় স্কুল ছাত্রী অপহরণ মামলার দুই আসামী গ্রেফতার। আজকের ক্রাইম-নিউজ ভোটকেন্দ্রে ছাত্রলীগ নেতাকে হাতকড়া পরিয়ে পেটালেন এসআই। আজকের ক্রাইম-নিউজ বাঁশ নিয়ে পুলিশকে পেটানোর ভিডিও ভাইরাল। আজকের ক্রাইম-নিউজ মেডিকেলের প্রশ্নফাঁস: ব্যাংকে ৬৫ কোটি টাকা, নামে-বেনামে ৪২ একর জমি। আজকের ক্রাইম-নিউজ ভোটার তালিকায় ‘মৃত’, তাই টিকা নিতে পারছেন না স্কুলশিক্ষক। আজকের ক্রাইম-নিউজ জিয়াকে জাতির পিতা বলায় তারেকের বিরুদ্ধে মামলা। আজকের ক্রাইম-নিউজ ইউপি নির্বাচনে আর অংশ নেবে না বিএনপি: ফখরুল। আজকের ক্রাইম-নিউজ ঝালকাঠি রিপোর্টাস ইউনিটির সভাপতি আসিফ সিকদার মানিকের বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাত ও সংগঠন বিরোধী কর্মকান্ডের ঘটনায় পুলিশ সুপারের বরাবরে লিখিত অভিযোগ।
৯৯৯ কল করে পুলিশের সহযোগিতা চিকিৎসকের রুম থেকে যুবতীকে উদ্ধার। আজকের ক্রাইম-নিউজ

৯৯৯ কল করে পুলিশের সহযোগিতা চিকিৎসকের রুম থেকে যুবতীকে উদ্ধার। আজকের ক্রাইম-নিউজ

অনলাইন ডেস্ক:: দিনাজপুরের এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের এক চিকিৎসকের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা করেছেন এক যুবতী (৩০)।
মঙ্গলবার (আজ) দুপুর সাড়ে ১২টায় দিনাজপুর কোতোয়ালি থানায় নিজে বাদী হয়ে তিনি এ মামলা করেন।

মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন দিনাজপুর কোতোয়ালি থানা পুলিশের ইন্সপেক্টর (তদন্ত) বজলুর রশিদ।

অভিযুক্ত চিকিৎসকের নাম ডা. নরদেব রায়। তিনি দিনাজপুরের এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের এ্যানেসথেসিস্ট চিকিৎসক। তিনি পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জ উপজেলার প্রেমবাজার এলাকার মনোরঞ্জন রায়ের ছেলে।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, দিনাজপুরের বিরল উপজেলার কাশিডাঙ্গা এলাকার ওই যুবতী (৩০) দিনাজপুরের হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করা অবস্থায় দিনাজপুরের এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. নরদেব রায়ের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। দীর্ঘ দুই বছরে প্রেমের সম্পর্কের কারণে ওই চিকিৎসক একাধিকবার বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে তাকে হাসপাতালের আবাসিক কোয়ার্টারে নিয়ে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করেন।

ওই যুবতী এজাহারে উল্লেখ করেছেন, বিয়ের করার কথা বললে আজকাল করতে করতে কালক্ষেপণ করতে থাকেন ডাক্তার নরদেব।

সর্বশেষ গত রোববার (১০ মে) ওই যুবতীকে ডা. নরদেব রায় মোবাইল ফোনে কল করে দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজের আবাসিক এলাকার একটি কোয়ার্টারের ৪র্থ তলায় আসতে বলে। সরকারি কোয়ার্টারে দুপুর ২টার সময় তিনি ডা. নরদেব রায়ের কাছে যান। সেখানে গিয়ে কিছুটা সময় কাটানোর পর ডা. নরদেব রায়কে বিয়ের কথা বললে তিনি বিভিন্ন কারণ দেখিয়ে বিয়ে করতে অনিহা প্রকাশ করেন। এক পর্যায়ে সন্ধ্যা ৬টার দিকে কোয়ার্টারের রুম থেকে তাকে বের করে দিতে চাইলে তিনি আর বের হননি। পরে ডা. নরদেব রায় তাকে কিলঘুষি মেরে কোয়ার্টার থেকে বের করে দেয়ার চেষ্টা করেন। এ সময় ওই যুবতী ঘর থেকে বের হতে না চাইলে তিনি নিজেই ঘরে তালা লাগিয়ে পালিয়ে যান।

ওইদিন (রোববার) রাত ১২টার দিকে কোনো উপায় না পেয়ে তিনি ৯৯৯ কল করে পুলিশের সহযোগিতা চায়। পরে পুলিশ সেখানে গিয়ে রাতেই তাকে ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।

ধর্ষণের বিষয়টি জানার জন্য ডা. নরদেব রায়কে ফোন করা হলে তার মোবাইল ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়। ওই চিকিৎসকের বড় ভাই পঞ্জগড় মহিলা কলেজের প্রভাষক জয়দেব বর্মন বলেন, এটা একটা সাজানো ফাঁদ। আমার ভাই একটা চক্রান্তের মধ্যে পড়েছে। ধর্ষণের বিষয়টি ভিত্তিহীন ও মিথ্যা। ওই মেয়ের সঙ্গে আমার ভাইয়ের কোনো সম্পর্ক নেই।

এ বিষয়ে দিনাজপুর কোতোয়ালি থানা পুলিশের ইন্সপেক্টর (তদন্ত) বজলুর রশিদ জানান, একজন চিকিৎসকের বিরুদ্ধে ধর্ষণের মামলা হয়েছে। বর্তমানে তিনি পলাতক আছেন। মেয়েটিকে পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য দিনাজপুরের এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

জানতে চাইলে দিনাজপুরের এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডা. নির্মল চন্দ্র দাস বলেন, মামলার বিষয়টি জেনেছি। তবে পুলিশ অথবা ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ যদি আমাদের কাছে লিখিতভাবে কিছু জানতে চায় তাহলে আমরা জানাব।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2019
Bengali English