২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২:৩১ অপরাহ্ন, ১২ই শাবান, ১৪৪৫ হিজরি, শুক্রবার, ১০ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

নোটিশ
জরুরী ভিত্তিতে কিছুসংখ্যক জেলা-উপজেলা প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে যোগাযোগ- ০১৭১২৫৭৩৯৭৮
সর্বশেষ সংবাদ :
মায়ের জানাজায় অংশ নিতে ফিরলেন ইতালি থেকে, সড়কে ঝরল প্রাণ অনিবন্ধিত সব স্বাস্থ্যকেন্দ্র দ্রুত বন্ধ করা হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী ঝালকাঠি’তে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জেএসডি) এর উদ্যোগে প্রতিনিধি সভা অনুষ্ঠিত বিশ্ববিদ্যালয় দিবস উদযাপন উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় বিএমপি কমিশনার এর অংশগ্রহণ বিরামপুর খানপুর ইউনিয়নে স্বল্প মূল্যে টিসিবির পন্য বিতরনের শুভ উদ্বোধন দামুড়হুদার কুড়ুলগাছি শিক্ষক – অভিভাবক সমাবেশ সকলকে সমন্বয়ের মাধ্যমে শিক্ষার মান উন্নয়নে কাজ করতে হবে, -জেলা প্রশাসক তেল-গ্যাস উত্তোলনে বিদেশিদের বিনিয়োগের আহ্বান জানালেন প্রধানমন্ত্রী প্রতারণার অভিযোগে স্বামীসহ যুব মহিলা লীগ নেত্রী মিম গ্রেপ্তার যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত জিকে শামীমের জামিন বাংলাবান্ধা-পঞ্চগড় মহাসড়কে বালু-পাথর ব্যবসা লোড আনলোডে জনদূভোর্গ সড়ক দূর্ঘটনা আশংকা
বানরীপাড়া মাদকের ব্যাপক রমরমা ব্যবসা চলছে

বানরীপাড়া মাদকের ব্যাপক রমরমা ব্যবসা চলছে

অনলাইন ডেক্স বানারীপাড়ায় মাদকের রমরমা ব্যবসা! দৈনিকই চলছে এমনটা! বিস্মিত অভিভাবক। উল্টো প্যাচের ভয়ে মুখে কুলুপ এটেছেন সাধারণ মানুষ। অনুসন্ধান করে এমনটিই জানাগেছে। আর এই মাদকের রমরমা ব্যবসা চলছে খোদ বানারীপাড়া পৌর শহরের ১নং ওয়ার্ডে। বানারীপাড়া-চাখার আঞ্চলিক সড়ক হয়ে পৌর শহরের ১নং ওয়ার্ডের (পুর্ব দিকে যেতে) শেষ সীমানায়।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে ওখানকার অনেক বাসিন্দারা জানান, মো. খাদেম হোসেনের স্ব-মিলে যাওয়ার রাস্তা হয়ে বাড়ির ভিতরের রাস্তা,চেয়ারম্যান বাড়ির ব্রিজ হয়ে মহিষাপোতা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে যাওয়ার রাস্তা,খালাসী বাড়ি যেতে ব্যবহৃত রাস্তা এবং কিছু ক্ষেত্রে রিক্সার ড্রাইভারদের ব্যবহার করাসহ পথচারী সেজে মাদক ব্যবসায়ীরা তাদের কারবার চালিয়ে যাচ্ছে বীর দর্পে। বিশেষ ক্ষেত্রে ব্যবহার করা হচ্ছে মোটরসাইকেল। এই চক্রটিই নাকি উপজেলার মাদক ব্যবসা নিয়ন্ত্রন করছে এমনও তথ্য উঠে এসেছে অনুসন্ধানে।

মাদক কেনা বেচায় বেশির ভাগ সময়ই বিকাশ নম্বর ব্যবহার করা হচ্ছে এমনটিও উঠে এসেছে অনুসন্ধানে। কাল-ক্রমে মাদক ব্যবসায়ীদের এবং সেবনকারিদের সাথে যুক্ত হচ্ছে নতুন নতুন সদস্য। ফলে পরিবারের একজন সদসস্যের কারণে বিপদের দিকে দাবিত হচ্ছে পুরো একটি পরিবার।

আরও জানাগেছে উপজেলার মাদক ব্যবসায় আলোচিত নাম সোহেল তার ব্যবসায় বর্তমানে যুক্ত করেছে স¤্রাট নামের এক যুবককে। জানাগেছে সে আগে বানারীপাড়া-চাখার সড়কে রিক্সা চালাতো। বর্তমানে সে কোন কাজ করছে না। সোহেলের মাদক এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় দিয়ে আসাই তার কাজ। তার বাবা মালেক বন্দর বাজার সহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সামনে ঝাঁলমুড়ি বিক্রি করতো বর্তমানে তাকে এ এলাকায় দেখা যাচ্ছে না।

এছাড়াও আরও কয়েকজন মাদক ব্যবসায়ী রয়েছে ওই এলাকায়,ওনাদের আবার শেল্টারদাতাও রয়েছে তাদের ভয়ে এলাকাবাসী সহ সাধারণ মানুষ মুখ খুলতে বা তাদের বারণ করতে সাহস পাচ্ছেনা বলেও অনুসন্ধানে জানাগেছে। ওখানকার কয়েকজন বাসিন্দারা জানান চোখের সামনে দেখছি মাদকের ব্যবসা হচ্ছে এই এলাকায় তবে উল্টো প্যাচের (নিজেরাই ফেঁসে যাবার) ভয়ে তারা কিছু বলতে পারছেন না। এই যখন অবস্থ্যা তখন এলাকার যুব সমাজকে বাঁচাতে ওই এলাকায় প্রশাসনের নজরদারি বৃদ্ধি করার দাবী উঠেছে সচেতন মহল থেকে।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2019