মঙ্গলবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২১, ০৭:১৪ পূর্বাহ্ন

Notice :
প্রকাশ্যে ধূমপান করে তোপের মুখেপড়া এক তরুণীর ভিডিও ভাইরাল।চরমোনাই পীরের ওয়াজ মাহফিল বাতিল।বিএনপির কোনো নেতাকর্মী যেন পদ্মা সেতু পার না হয় বললেন শাজাহান খান।জাতীয় পরিচয়পত্রের তথ্য অনুযায়ী, ভাতাপ্রাপ্ত প্রায় দুই হাজার বীর মুক্তিযোদ্ধার বয়স ৫০–এর নিচে।করোনা আক্রান্ত কনের অভিনব পদ্ধতিতে বিয়ে (ভিডিও)আবাসিক হোটেলে জনপ্রিয় অভিনেত্রীর ঝুলন্ত মরদেহ।পুলিশে হঠাৎ বড় রদবদল।ইউটিউবে যাত্রা শুরু করছেন মিজানুর রহমান আজহারী।
সর্বশেষ সংবাদ :
জেল খাটার পরেও এমবিবিএস ডাক্তার পরিচয়ে প্রতারণা: অত:পর ধরা। আজকের ক্রাইম-নিউজ ঝালকাঠী আইনজীবী সমিতির নির্বাচিত কমিটিকে সাংবাদিক ক্লাবের শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন। আজকের ক্রাইম-নিউজ ২৬ মার্চের আগেই আনুষ্ঠানিক ক্ষমা চাইতে পারে পাকিস্তান! আজকের ক্রাইম-নিউজ একাউন্টে আসা বিপুল টাকা ফেরত দিলেন মসজিদের ইমাম। আজকের ক্রাইম-নিউজ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে মূল্যায়ন চান বানারীপাড়ার ত্যাগী ছাত্রলীগ নেতা মনির বিশ্বাস। আজকের ক্রাইম-নিউজ বরিশালের আগৈলঝাড়ায় মুজিব বর্ষ উপলক্ষে ক্রিকেট টুর্নামেন্টের উদ্বোধন। আজকের ক্রাইম-নিউজ পাগল কাদের মির্জাকে পাবনা পাঠান, নইলে গণধোলাই খাবে: নিক্সন চৌধুরী। আজকের ক্রাইম-নিউজ এশিয়ান টিভির ৮ম বর্ষপূর্তি অনুষ্ঠান: আজকের ক্রাইম-নিউজ কীর্তনখোলা লঞ্চ মালিক ফেরদৌসের বিরুদ্ধে প্রতারণা মামলা। আজকের ক্রাইম-নিউজ ইয়াবা বিক্রির সময় নারীসহ পুলিশ কর্মকর্তা আটক। আজকের ক্রাইম-নিউজ
কার্পাসডাঙ্গা বাসী যেনো এক নিরাপত্তার চাদরে বসোবাস করছে।

কার্পাসডাঙ্গা বাসী যেনো এক নিরাপত্তার চাদরে বসোবাস করছে।

মোঃ তহিরুল ইসলাম নিজস্ব প্রতিনিধি কার্পাসডাঙ্গা থেকে ফিরে::-

মরণ নেশা মাদকের নীল সোবলে কার্পাসডাঙ্গা ফাঁড়ির প্রাণ কেন্দ্র কয়েকটি গ্ৰাম যুব সমাজ যখন বি-পথের দিকে ধাবিত হচ্ছে ঠিক সেই মূর্হুতেই মাদক নিমূর্ল চুরি, ডাকাতি, ছিনতাইসহ সকল অপরাধীদের গ্রেফতারে কার্পাসডাঙ্গা ফাঁড়ির ইনচার্জ মোঃ সাইফুল ইসলাম ব্যাপক প্রশংসনীয় উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন। তিনি এ ক্যাম্পে যোগদানের পর কার্পাসডাঙ্গা এলাকায় আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে বলিষ্ঠ ভূমিকা পালন করে চলছেন। সেই সাথে তিনি চুরি, ডাকাতি, ছিনতাইসহ প্রায় ৫০/৬০ টি মাদকদ্রব্য বিক্রেতা ও সেবনকারীকে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় এনেছেন। উদ্ধার করেছেন অসংখ্য মাদকদ্রব্য। যার ফলে উচ্ছেদ হচ্ছে মাদক স্পট। শুধু মাদকই নয় কার্পাসডাঙ্গা বিভিন্ন স্থানে তিন তাসের ম্যাধ্যমে যেসব জুয়া খেলা চলতো তাও এই প্রতিবাদী মোঃ সাইফুল ইসলাম নিমূল করতে সক্ষম হয়েছে। যার ফলে স্থানীয় পুলিশ ফাঁড়ির প্রতি জনগনের স্বস্তি আস্থা ও বিশ্বাসের সৃষ্টি হয়েছে। ইতিপূর্বে অন্য কেউ এমন বিশ্বাস ও আস্থা অর্জন করতে সক্ষম হয়নি। কার্পাসডাঙ্গা এলাকা কয়েক মাস আগেও মাদক ব্যবসায়ীদের স্বর্গ রাজ্যে পরিণত ছিল। কিন্তু বর্তমান কর্মরত মোঃ সাইফুল ইসলাম এ ক্যাম্পে যোগদান করারপর থেকেই কার্পাসডাঙ্গাবাসী যেন এক নিরাপত্তার চাদরে বসবাস করছে। এব্যাপারে মোঃ সাইফুল ইসলাম জানান মাদক মরণ নেশা একটি মারাত্বক ব্যাধি। যার রোষানলে পড়ে যুব সমাজ আজ বিপদগামী। তাই যুব সমাজকে মাদক থেকে বাচাঁতে তিনি পুলিশ বিভাগে যোগদান করারপর থেকেই মাদক নিমূলের বিষয়ে কঠোর পদক্ষেপ গ্রহন করে আসছে। তিনি বলেন বাঁচতে চাইলে মাদক ছাড়ুন এই সুলোগানকে সামনে রেখে কার্পাসডাঙ্গা মাদক মুক্ত রাখার প্রত্যয় নিয়ে কাজ করে যাচ্ছেন। মোঃ সাইফুল ইসলামের রয়েছে যেমন দক্ষতা সাহসীকতা তেমনি রয়েছে সততা। পুলিশ ও জনগণ আরেক জনের বন্ধু এবং একে অপরের সুম্পুর্নক। তাই উভয়েই মিলেই সচেতনতার সাথে সামাজিক ভাবে দায়িত্ব পালন করলে সমাজে অপরাধ নির্মূল সম্ভব। আইনের শাষন প্রতিষ্টায় সকলে মিলে একাত্বতা ঘোষনা করলে অবশ্যই সমাজে শান্তি ফিরে আসবে। অপরাধী যতই শক্তিশালী হোক পুলিশ সক্রিয় থাকলে একাগ্রতার সাথে নিষ্ঠার সাথে কাজ করলে অপরাধ নির্মূল করা সাম্ভব। মোঃ সাইফুল ইসলাম এর ব্যাপারে কার্পাসডাঙ্গা এলাকায় গভীর ভাবে খোঁজ নিয়ে জানাগেছে তিনি মাদক ব্যবসায়ীদের বড় শত্রু এবং অপরাধীদের পিছনে কৌশল অবল্বন করে তাকে যেভাবেই হোক আইনের আওতায় এনেছেন। অথচ অনেক পুলিশ অফিসার এর সাথে দাগী অসামীদের দহরম মহরম সর্ম্পক। ফলে সমাজে আইন শৃঙ্খলার চরম অবনতি ঘটে। কিন্তু মোঃ সাইফুল ইসলাম এর কাছে তার সবই যেনো উল্টো কেননা তিনি তার চাকুরী জীবনের শুরু থেকেই সততা ন্যায় নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করে আসছে। তার কাছে কোন অপরাধীই গুড সর্ম্পক করার সাহস পায় না। মোঃ সাইফুল ইসলাম মাদক দ্রব্য উচ্ছেদের জন্য এতটায় তৎপর যে তার কাছে যে কোনো ব্যক্তি মাদক বিক্রেতা ও সেবন কারীর তথ্য দিলেই সেখানে অভিযান চালান। যার কারণে
কার্পাসডাঙ্গা এখন গ্রেফতার আতঙ্কে ভুগছে অপরাধীরা।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2019
Bengali English