২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৯:৩৫ অপরাহ্ন, ১৩ই শাবান, ১৪৪৫ হিজরি, শনিবার, ১১ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

নোটিশ
জরুরী ভিত্তিতে কিছুসংখ্যক জেলা-উপজেলা প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে যোগাযোগ- ০১৭১২৫৭৩৯৭৮
সর্বশেষ সংবাদ :
বরিশালে ফুটওভার ব্রিজ নির্মাণের দাবীতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত রাষ্ট্রীয় পদক পাচ্ছেন কেএমপি’র তিন পুলিশ কর্মকর্তা ফেসবুকে ‘বলার ছিল অনেক কিছু’ লিখে ফাঁস দিল এসএসসি পরীক্ষার্থী বানারীপাড়ায় অবসরপ্রাপ্ত পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্মকর্তা আব্দুল মতিন চৌধুরীর ইন্তেকাল বানারীপাড়ায় বন্দর মডেল স্কুলে তিনদিন ব্যাপি বার্ষিক ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত শিক্ষক-কর্মচারী কো-অপরেটিভ ক্রেডিট ইউনিয়ন লিঃ এর ১৭তম বার্ষিক সাধারণ সভা আগৈলঝাড়ায় অনুষ্ঠিত মুজিব”একটি জাতির রুপকার প্রদর্শিত হলো বরিশালের গৌরনদী লাইসেন্সবিহীন প্যাথলজি সেন্টারকে জরিমানা ও বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে গৌরনদীতে এসএসসি পরীক্ষার্থীর অভিভাবকের কাছ থেকে ঘুস গ্রহণকালে ধরা কর্মকর্তা টাকা ভাগাভাগির দ্বন্দ্বে ৩ দিন পর দাফন হলো মরদেহ
বিপদে যার কাছে আশ্রয় নেয়া যায় তিনিই প্রকৃত বন্ধু। আজকের ক্রাইম নিউজ ডট কম

বিপদে যার কাছে আশ্রয় নেয়া যায় তিনিই প্রকৃত বন্ধু। আজকের ক্রাইম নিউজ ডট কম

মোঃ তহিরুল ইসলাম স্টাফ রিপোর্টার::-

পুলিশ জনগনের বন্ধু। বিপদে যার কাছে আশ্রয় নেয়া যায় তিনিই প্রকৃত বন্ধু। শুধু তাই নয় পুলিশ সমাজের ভারসাম্য রক্ষা করে। অপরাধ নির্মূলে সচেষ্ট থাকে, থাকে নিরাপত্তা দেওয়ার দায়িত্বে। এগুরুত দায়িত্ব পালনের ক্ষেত্রে চাই দেশপ্রেম। দলমর্তের ঊর্দ্ধে থেকে নিজ দায়িত্ব পালন করতে পারলেই যেমন সফল হওয়া যায়। তেমনি দক্ষ, ও সৎ সাহসী পুলিশ অফিসার দেশের মানুষের কল্যানে কাজ করবে এটাই কাম্য। জনগণের নিরাপত্তা বিধান ও আইন-শৃঙ্খলা স্বাভাবিক রাখতে যোগ্য, সৎ সাহসী, পুলিশের ভূমিকা অত্যান্ত গুরুত্বপূর্ণ। এদেশের পুলিশ বাহিনীতে সৎ, যোগ্য, আদর্শবান পুলিশের সংখ্যা ও কম নয়। অফিসার এ পুলিশ পরিদর্শক মাহাবুবুর রহমান সাহেব দর্শনা তদন্ত কেন্দ্র এ যোগদান করার পর থেকে এলাকার দাগী আসামী, মাদক ব্যবসায়ী, ছিনতাইকারী, ওয়ারেন্টভুক্ত আসামীসহ কুখ্যাত খুনিদের আটক করতে সক্ষম হয়েছে। এছাড়াও তার নিদের্শে দর্শনা অন্যান্য অফিসার, পুলিশ কনস্টেবল ও ন্যায় নিষ্টার সহিত কাজ করে যাচ্ছে। কারণ কথায় আছে বাপ কা বেটা সিপাহী কা ঘোড়া……। আসলে এই প্রবাদ ব্যাখাটির সাথে এই দর্শনা পুলিশ সদস্যদের অনেকটা মিল আছে বটে। পলিশ পরিদর্শক শেখ মাহাবুবুর রহমান সাহেব এই দর্শনা তদন্ত কেন্দ্র যোগদান করারপর থেকেই এলাকার শান্তি ফিরে দিতে সমর্থ হয়েছেন। ফলে এই দর্শনা সবাই শেখে মাহাবুবুর রহমান সাহেবকে এক প্রকার বন্ধুর মতোই দেখতে শুরু করেছে। সব কিছু মিলিয়ে শেখ মাহাবুবুর রহমান সম্পর্কে বলতে গেলে আপোষহীন অন্যায় ও ষড়যন্তকারীর দুষমন। দর্শনার অফিসার পুলিশ পরিদর্শক শেখ মাহাবুবুর রহমান সাহেব আজকের ক্রাইম নিউজ এর স্টাফ রিপোর্টার মোঃ তহিরুল ইসলাম এর সাথে একান্ত সাক্ষাৎকারে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। তিনি আরো বলেন, জনগণ পুলিশের প্রতি আস্থা রাখুক। আর জনগণকে সেবা দিতে পারাই হচ্ছে আমার শান্তি। কারণ পুলিশই জনগণকে বন্ধু বানাতে হবে। আর এটাই আমার চাওয়া পাওয়া। জনগণ যেন পুলিশকে ভুল না বুঝে। জনগণের সাথে পুলিশের সু-সম্পর্ক থাকলেই পুলিশের মান-সম্মান অক্ষুন্ন থাকবে। তিনি আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা, মাদক, সন্ত্রাস মুক্ত দর্শনা গড়তে চালেঞ্জ হিসেবে গ্রহন করেছেন এবং 90% সফল ও হয়েছেন। যুব সমাজকে বাচাঁতে তিনি মাদক নিমূলের বিষয়ে কঠোর পদক্ষেপ গ্রহন করে আসছে তিনি নিজে ফোর্স সঙ্গে করে নিয়ে অভিযান চালাতে থাকে। তিনি এই পুলিশ পরিদর্শকে যোগদানের পর অভিযান চালিয়ে অসংখ্য মাদক বিক্রেতা ও সেবনকারীদেরকে গ্রেফতার করে জেল হাজতে প্রেরণ করছে। তাই সব মিলিয়ে বলা যায় দর্শনা এখন প্রায় মাদকমুক্ত। শেখ মাহাবুবুর রহমান সাহেবের রয়েছে যেমন দক্ষতা, সাহসীকতা তেমনি রয়েছে সততা। পুলিশ ও জনগণ আরেক জনের বন্ধু এবং একে অপরের সম্পুরক। তাই উভয়েই মিলেই সচেতনতার সাথে সামাজিক ভাবে দায়িত্ব পালন করলে সমাজে অপরাধ নির্মূল সম্ভব। আইনের শাষন প্রতিষ্টায় সকলে মিলে একাত্বতা ঘোষনা করলে অবশ্যই সমাজে শান্তি ফিরে আসবে। তিনি আরো বলেন, অপরাধী যতো বড়ই শক্তিশালী হোক পুলিশ সক্রিয় থাকলে একাগ্রতার সাথে নিষ্ঠার সাথে কাজ করলে অপরাধ নির্মূল করা সম্ভব। পুলিশ পরিদর্শক শেখ মাহাবুবুর রহমান সাহেব এর ব্যাপারে দর্শনায় গভীর ভাবে খোঁজ নিয়ে জানাগেছে, তিনি মাদক ব্যবসায়ীদের বড় শত্রু এবং অপরাধীদের পিছনে কৌশল অবল্বন করে তাকে যেভাবেই হোক আইনের আওতায় এনেছেন বা আনার চেষ্টা করছে। অথচ অনেক পুলিশ অফিসার এর সাথে দাগী অসামীদের দহরম মহরম সর্ম্পক। ফলে সমাজে আইন শৃঙ্খলার চরম অবনতি ঘটে। কিন্তু পুলিশ পরিদর্শক শেখ মাহাবুবুর রহমান সাহেব এর কাছে তার সবই যেন উল্টো কেননা তিনি তার চাকুরী জীবনের শুরু থেকেই সততা ন্যায় নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করে আসছে। তার কাছে কোন অপরাধীই গুড সর্ম্পক করার সাহস পায়না। যার কারণে বর্তমানে দর্শনায় আইন শূঙ্খলা পরিস্থিতি সন্তোষজনক পর্যায়ে রয়েছে বলে ও জনসাধারণের দাবী।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2019