মঙ্গলবার, ১৮ মে ২০২১, ০৫:২১ অপরাহ্ন

Notice :
প্রকাশ্যে ধূমপান করে তোপের মুখেপড়া এক তরুণীর ভিডিও ভাইরাল।চরমোনাই পীরের ওয়াজ মাহফিল বাতিল।বিএনপির কোনো নেতাকর্মী যেন পদ্মা সেতু পার না হয় বললেন শাজাহান খান।জাতীয় পরিচয়পত্রের তথ্য অনুযায়ী, ভাতাপ্রাপ্ত প্রায় দুই হাজার বীর মুক্তিযোদ্ধার বয়স ৫০–এর নিচে।করোনা আক্রান্ত কনের অভিনব পদ্ধতিতে বিয়ে (ভিডিও)আবাসিক হোটেলে জনপ্রিয় অভিনেত্রীর ঝুলন্ত মরদেহ।পুলিশে হঠাৎ বড় রদবদল।ইউটিউবে যাত্রা শুরু করছেন মিজানুর রহমান আজহারী।
কিশোর গ্যাং রিফাত বাহিনীর ৩ সদস্য আটক

কিশোর গ্যাং রিফাত বাহিনীর ৩ সদস্য আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক :: বরিশাল নগরীর চাঁদমারী চার রাস্তার মোড়ে ছাত্রলীগ কর্মী তরিকুল ইসলামকে কুপিয়ে জখম করার ঘটনায় সন্ত্রাসী কিশোর গ্যাং রিফাত বাহিনী তিন সদস্যকে আটক করেছে কোতয়ালী মডেল থানা পুলিশ।

বুধবার ভোররাত ৩টায় বাবুগঞ্জ থেকে তাদের আটক করা হয়।

আটককৃতরা হলেন- বাবুগঞ্জের আবির ও নগরীর জর্ডান রোড এলাকার নাজির হোসেনের ছেলে হাদি এবং রুপাতলীর দপদপিয়া পুরাতন ফেরিঘাট এলাকার সুজন।

পুলিশ জানায়, কোতয়ালী মডেল থানা পুলিশের সহকারি কমিশনার শায়েদের নেতৃত্বে এস আই সাইদুল এবং এএসআই সুমন একদল পুলিশ নিয়ে বাবুগঞ্জে আবিরের বাসায় অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করে।

আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করে কোতয়ালী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নুরুল ইসলাম বলেন, আটক ৩ জনকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।”

উল্লেখ্য, গত তিন মাস পূর্বে নগরীর বঙ্গবন্ধু উদ্যান এলাকায় তরিকুল ও রাজু মধ্যে সিনিয়র ও জুনিয়র নিয়ে দ্বন্দ্ব হয়। এ ঘটনার পর থেকে জিলা স্কুল এলাকার কিশোর গ্যাং গ্রুপের প্রধান রিফাত বাহিনীর সদস্য রাজু, হাসিব, সুজন, তাজিম, সিফাত, হাদি ও তৌফিকসহ আরও অজ্ঞাত ১০/ ১১ জন দা, রামদা নিয়ে মোটরসাইকেল মহড়া দিয়ে চাঁদমারী এলাকায় তরিকুলকে খুঁজতে থাকেন। বৃহস্পতিবার হঠাৎ করেই চাঁদমারী মোড়ে একটি চায়ের দোকানে বসা ছিল তরিকুল। এ সময় দা ও রামদা দিয়ে সন্ত্রাসী রাজু, হাসিব, সুজন, তাজিম, সিফাত, হাদি ও তৌফিক এলোপাতাড়ি কুপিয়ে জখম করে। এলাকার লোকজন তাদের ধাওয়া করলে সন্ত্রাসীরা দা ও রামদা নিয়ে পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়। এ সময় গোটা এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। আহত তরিকুলকে তাৎক্ষণিক এলাকাবাসী উদ্ধার করে শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

সম্প্রতি বরিশালে কিশোর গ্যাং এর সন্ত্রাসী গ্রুপ বেপরোয়াভাবে সন্ত্রাসী কার্যক্রম চালাচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। বিশেষ করে পাড়া বা মহল্লা এসব কিশোর গ্যাংয়ের কাছে অবৈধ অস্ত্র ও দেশি রামদা, চাপাতি রয়েছে ।

এসব অপরাধীদের গ্রেফতার করে অস্ত্র উদ্ধারে অভিযান চালালে কিশোর গ্যাং অনেকাংশে কমে আসবে বলে জানান জনপ্রতিনিধিরা। একইসাথে গোটা বরিশালে এখন কিশোর গ্যাং আতঙ্ক বিরাজ করছে।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2019
Bengali English