বৃহস্পতিবার, ০৬ মে ২০২১, ১০:৪৯ অপরাহ্ন

Notice :
প্রকাশ্যে ধূমপান করে তোপের মুখেপড়া এক তরুণীর ভিডিও ভাইরাল।চরমোনাই পীরের ওয়াজ মাহফিল বাতিল।বিএনপির কোনো নেতাকর্মী যেন পদ্মা সেতু পার না হয় বললেন শাজাহান খান।জাতীয় পরিচয়পত্রের তথ্য অনুযায়ী, ভাতাপ্রাপ্ত প্রায় দুই হাজার বীর মুক্তিযোদ্ধার বয়স ৫০–এর নিচে।করোনা আক্রান্ত কনের অভিনব পদ্ধতিতে বিয়ে (ভিডিও)আবাসিক হোটেলে জনপ্রিয় অভিনেত্রীর ঝুলন্ত মরদেহ।পুলিশে হঠাৎ বড় রদবদল।ইউটিউবে যাত্রা শুরু করছেন মিজানুর রহমান আজহারী।
অনলাইন গেমে আসক্ত তরুণেরা: বন্ধের দাবিতে সরব অভিভাবকেরা।

অনলাইন গেমে আসক্ত তরুণেরা: বন্ধের দাবিতে সরব অভিভাবকেরা।

আজকের ক্রাইম ডেক্স::: বাংলাদেশে অনলাইন ভিত্তিক সকল গেম নিষিদ্ধের দাবি উঠেছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে গণহারে স্ট্যাটাস দিয়ে বেশ কয়েক দিন ধরে এমন দাবি জানিয়ে আসছে ব্যবহারকারীরা। ছাত্র-যুব সমাজকে রক্ষায় এই দাবি বাস্তবায়ন করতে বাংলাদেশ সরকারের পদক্ষেপ নেওয়া জরুরি বলে মন্তব্য করা হচ্ছে।

ফেসবুকে অনুসন্ধান চালিয়ে দেখা গেছে- ফেসবুকে ব্যবহারকারীরা গেম বন্ধ করতে আগ্রহের কারণ হিসেবে বলছেন, তাদের সন্তানেরা এখন পড়াশুনা বাদ দিয়ে সর্বদা আসক্ত থাকছে। করোনাভাইরাস মহামারির কারণে দেশে চলমান ‘লকডাউন’র এই সময়ে সন্তানেরা অভিভাবকদের অবাধ্য হয়ে স্মার্টফোনে ইন্টারনেট ভিত্তিক গেমে ব্যস্ততা দেখাচ্ছে।

কোনো কোনো অভিভাবক এমনটিও জানিয়েছেন, তাদের সন্তনেরা এতটাই আসক্ত যে, বাবা-মা, স্বজনদের সাথে রুঢ় আচারণ করে বসছে।

বরিশাল শহরের বাসিন্দা শিউলি আক্তার নামের এক অভিভাবক জানিয়েছেন, তাদের বাসার সম্মুখে রাস্তা ও বাগানে উঠতি বয়সি শিশু-যুবকেরা সারিবদ্ধভাবে বসে অনলাইন ভিত্তিক গেমে মত্ত থাকছে। পড়াশুনাতো দুরের কথা, বাসার টুকিটাকি কাজেও তাদের সহযোগিতা পাওয়া যায় না। কেউ কেউ এতটাই আসক্ত যে অভিভাবকদের সাধে দুর্ব্যবহার করছে।

অনুরুপ তিক্ত অভিজ্ঞতার কথা তুলে ধরে ফেসবুকে পোস্ট দিয়েছেন মামুনুর রশিদ নামের একজন সাংবাদিক। তিনি অনলাইন ভিত্তিক সকল গেম বন্ধে সরকারের প্রতি আহবান জানিয়েছেন।

এছাড়া আরও একাধিক ব্যক্তি এই গেমের নেতিবাচক প্রভাবেব কথা তুলে ধরে দ্রুত বন্ধ করতে সরকারের প্রতি অনুরোধ রাখেন।

বরিশালের সুশীল মহলও মনে করছেন, শিশু-সন্তানদের মেধার সুষ্ঠু বিকাশের লক্ষে এবং তাদের পড়াশুনায় মনযোগী করে তোলার ক্ষেত্রে এসব গেম প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করছে। কারও কারও মতে, সন্তানদের বিপদগামীও করেছে। এই বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে সরকারের আইসিটি মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগ গ্রহণ করে অনলাইন গেম বন্ধ করা জরুরি বলে অভিমত পাওয়া গেছে।’

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2019
Bengali English