সোমবার, ১২ এপ্রিল ২০২১, ১২:২৮ অপরাহ্ন

Notice :
প্রকাশ্যে ধূমপান করে তোপের মুখেপড়া এক তরুণীর ভিডিও ভাইরাল।চরমোনাই পীরের ওয়াজ মাহফিল বাতিল।বিএনপির কোনো নেতাকর্মী যেন পদ্মা সেতু পার না হয় বললেন শাজাহান খান।জাতীয় পরিচয়পত্রের তথ্য অনুযায়ী, ভাতাপ্রাপ্ত প্রায় দুই হাজার বীর মুক্তিযোদ্ধার বয়স ৫০–এর নিচে।করোনা আক্রান্ত কনের অভিনব পদ্ধতিতে বিয়ে (ভিডিও)আবাসিক হোটেলে জনপ্রিয় অভিনেত্রীর ঝুলন্ত মরদেহ।পুলিশে হঠাৎ বড় রদবদল।ইউটিউবে যাত্রা শুরু করছেন মিজানুর রহমান আজহারী।
সর্বশেষ সংবাদ :
সিলেটের বিয়ানীবাজার সীমান্তে বিজিবি-বিএসএফ’র পতাকা বৈঠক !! মসজিদ নির্মাণে ভারতীয় বিএসএফের বাধা না দেওয়ার আশ্বাস।

সিলেটের বিয়ানীবাজার সীমান্তে বিজিবি-বিএসএফ’র পতাকা বৈঠক !! মসজিদ নির্মাণে ভারতীয় বিএসএফের বাধা না দেওয়ার আশ্বাস।

আবুল কাশেম রুমন,সিলেটে: সিলেটের বিয়ানীবাজার সীমান্তে মসজিদ নির্মাণ কাজে ভারতীয় বিএসএফের বাধার অভিযোগের প্রেক্ষিতে সীমন্তে বিজিবি ও বিএনএফ্র পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। ২৩ মার্চ মঙ্গলবা সুতারকান্দি আইসিপি’তে বিজিবি-বিএসএফ’র পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এ বৈঠকে বাংলাদেশের পক্ষে নেতৃত্ব দেন বিয়ানীবাজার ব্যাটালিয়নের (৫২ বিজিবি) অধিনায়ক লে. কর্নেল মো. শাহ আলম সিদ্দিকী। ভারতীয় পক্ষে নেতৃত্ব দেন-৭ বিএসএফ’র অধিনায়ক বি এস মিনহাজ।
বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) সূত্র জানায়, পতাকা বৈঠকে বিএসএফ মসজিদ নির্মাণে বাধা দেবে না বলে বিজিবি’কে মৌখিকভাবে আশ্বস্ত করে। বৈঠকে সীমান্ত এলাকায় বিএসএফ’র খননকৃত বাংকার তুলে নেয়ার আহ্বান জানায় বিজিবি। ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে আলোচনা করে এ বিষয়ে পরবর্তী সিদ্ধান্ত জানাবে বলে জানিয়েছে বিএসএফ।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বিয়ানীবাজার উপজেলার গজুকাটা সীমান্ত এলাকার ১৩৫৭ নম্বর পিলারের ভেতরে বাংলাদেশ অংশে গজুকাটা গ্রামের ২০০ বছরের পুরানো কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের পাকা ভবনটি অত্যান্ত ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ায় এলাকাবাসী নতুন করে নির্মাণের উদ্যোগ দেন। এ নিয়ে এলাকাবাসী ২০১৮ সালে মসজিদ নির্মাণের সিদ্ধান্ত গ্রামবাসী নেওয়ার পর তারা বিজিবির সহযোগীতা চেয়ে ছিলেন। তৎকালিন বিজিবি ৩২ ব্যাটালিয়ানের কামান্ডার বিএসএফের কমান্ডারের সঙ্গে বৈঠকও করেন। বৈঠকে মসজিদ নির্মাণের সিদ্ধান্ত হলে এলাকাবাসী নির্মাণের কাজ শুরু করেন বলে জানান। হঠাৎ বিএসএফ মসজিদ নিমাণ কাজে বাধা প্রদান করায় এলাকাবাসীর ধর্মপ্রাণ মানুষের মাঝে ক্ষোভ ও উত্তেজানা বিরাজ করে।
এ বিষয়ে বিয়ানীবাজার ব্যাটালিয়নের (৫২ বিজিবি) অধিনায়ক লে. কর্নেল মো. শাহ আলম সিদ্দিকী জানিয়েছেন, ১৯৭৫ সালের চুক্তি অনুযায়ী, ভারতীয় বাহিনী জিরো লাইনের অনুমান ১৫০/২০০ গজের ভেতরে প্রবেশ করে কোনো ধরনের বাধা প্রদান করতে পারে না। তারা সীমান্ত আইন লঙ্ঘন করে নো ম্যান্স ল্যান্ডের ১৫০/২০০ গজের মধ্যে নির্মিত ২০০ বছরের পুরনো মসজিদ পুন:নির্মাণ কাজে বাধা প্রদান করেছে। এ নিয়ে আমরা কড়া প্রতিবাদ জানিয়েছি।
এছাড়া পতাকা বৈঠকে মসজিদ নির্মাণে বাধা না দেয়া এবং বাংকার সরিয়ে নেয়ার বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। বিএসএফ আমাদের বক্তব্য আমলে নিয়েছে এবং মসজিদ নির্মাণে বাধা প্রদান করবে না বলে মৌখিক ভাবে জানিয়েছে। তিনি বলেন, মসজিদের নির্মাণ কাজ বন্ধ আছে। তবে যে কোন পরিস্থিতিতে সীমান্ত এলাকায় বিজিবি সতর্ক অবস্থানে রয়েছে বলে জানান তিনি।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2019
Bengali English