রবিবার, ০৯ মে ২০২১, ০৩:২০ পূর্বাহ্ন

Notice :
প্রকাশ্যে ধূমপান করে তোপের মুখেপড়া এক তরুণীর ভিডিও ভাইরাল।চরমোনাই পীরের ওয়াজ মাহফিল বাতিল।বিএনপির কোনো নেতাকর্মী যেন পদ্মা সেতু পার না হয় বললেন শাজাহান খান।জাতীয় পরিচয়পত্রের তথ্য অনুযায়ী, ভাতাপ্রাপ্ত প্রায় দুই হাজার বীর মুক্তিযোদ্ধার বয়স ৫০–এর নিচে।করোনা আক্রান্ত কনের অভিনব পদ্ধতিতে বিয়ে (ভিডিও)আবাসিক হোটেলে জনপ্রিয় অভিনেত্রীর ঝুলন্ত মরদেহ।পুলিশে হঠাৎ বড় রদবদল।ইউটিউবে যাত্রা শুরু করছেন মিজানুর রহমান আজহারী।
সর্বশেষ সংবাদ :
গবেষণা বলছে সন্তান পালনের চেয়ে অফিস করা সহ’জ

গবেষণা বলছে সন্তান পালনের চেয়ে অফিস করা সহ’জ

প্রতিদিন অফিস করতে গিয়ে একটা সময় ক্লান্তি জেঁকে ধ’রা অস্বাভাবিক নয়। তখন সবকিছু ছেড়েছুড়ে একটু অবকাশ যাপনের ইচ্ছে জাগতেই পারে। নিজের বাড়িতে, নিজের বিছানায় এক-আধদিন অলস শুয়ে থাকতে ইচ্ছে করতেই পারে।যদি আপনার বাড়িতে ছোট্ট কোনো শি’শু থাকে যাকে আপনারই সামলাতে হয়, সহ’জ ভাষায় বললে বাড়িতে আপনার যদি শি’শু সন্তান থাকে, তবে অফিস রেখে অবসর যাপন এতটা লো’ভনীয় নাও লাগতে পারে!অ’বাক হলেও সত্যি যে বেশিরভাগ মা-বাবাই কিন্তু এমনটাই বলছেন। বাড়িতে ছোট্ট শি’শু থাকলে অফিসের চেয়েও বেশি ক্লান্ত হয়ে পড়তে হয়।একদিন একটু বিশ্রাম নিতে ঘরে থাকলে দেখা যায় দিনের শেষে আপনি অনেক বেশি ক্লান্ত হয়ে পড়েছেন। শি’শুর দিকে সব সময় নজর রাখা অফিসের ফাইল ঘাঁটার থেকে অনেক বেশি ক্লান্তিকর বলে জানাচ্ছে গবেষণা।৩১% বাবা-মায়ের মতে অফিসের বসের থেকে ‘বেবি বস’ অনেক বেশি কাজ করিয়ে নেয়। ৫৫% বাবা-মায়ের মতে শি’শুর প্রতি দায়িত্ব পালন করা অ’ত্যন্ত কঠিন কাজ এবং ২০% বাবা-মা মনে করছেন যে শি’শুর খেয়াল রাখা সত্যিই খুব কঠিন ও পরিশ্রমসাপেক্ষ।তবে কঠিন হলেও এই কাজ ভালোবেসেই করেন বাবা-মায়েরা। এখানেই অফিসের কাজের সঙ্গে নিজের সন্তানকে দেখাশোনা করার মধ্যে পার্থক্য এসে যায়। কঠিন হলেও দিনের শেষে সন্তানের হাসিমুখ দেখার থেকে বড় পাওনা আর কিছুই নেই।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2019
Bengali English