শনিবার, ০৮ মে ২০২১, ০৬:৫৪ পূর্বাহ্ন

Notice :
প্রকাশ্যে ধূমপান করে তোপের মুখেপড়া এক তরুণীর ভিডিও ভাইরাল।চরমোনাই পীরের ওয়াজ মাহফিল বাতিল।বিএনপির কোনো নেতাকর্মী যেন পদ্মা সেতু পার না হয় বললেন শাজাহান খান।জাতীয় পরিচয়পত্রের তথ্য অনুযায়ী, ভাতাপ্রাপ্ত প্রায় দুই হাজার বীর মুক্তিযোদ্ধার বয়স ৫০–এর নিচে।করোনা আক্রান্ত কনের অভিনব পদ্ধতিতে বিয়ে (ভিডিও)আবাসিক হোটেলে জনপ্রিয় অভিনেত্রীর ঝুলন্ত মরদেহ।পুলিশে হঠাৎ বড় রদবদল।ইউটিউবে যাত্রা শুরু করছেন মিজানুর রহমান আজহারী।
সিলেটের জেলা প্রশাসক বরাবরে জেলা রিক্সা শ্রমিক ইউনিয়নের স্মারকলিপি পেশ।

সিলেটের জেলা প্রশাসক বরাবরে জেলা রিক্সা শ্রমিক ইউনিয়নের স্মারকলিপি পেশ।

আবুল কাশেম রুমন,সিলেট: সিলেটের জেলা প্রশাসক এম কাজী এমদাদুল ইসলাম বরাবরে দ্রব্য মূল্যের ঊর্ধ্বগতি রোধ ও রিক্সা শ্রমিকদের সরকারি সাহায্যের আওতায় নিয়ে আসা এবং রমজান ও ঈদকে সামনে রেখে মানবিক দিক বিবেচনা করে কোর্ট পয়েন্ট থেকে চৌহাট্ট পর্যন্ত পূর্বের ন্যায় রিক্সা চলাচলের দাবীতে স্মারকলিপি পেশ করেছেন সিলেট জেলা রিক্সা শ্রমিক ইউনিয়ন রেজিঃ নং চট্ট-১৬৬৯ এর নেতৃবৃন্দ।
১৩ এপ্রিল মঙ্গলবার দুপুরে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে স্মারকলিপি প্রদান শেষে সংগঠনের নেতৃবৃন্দ পৃথক পৃথক ভাবে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী, সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার ও সিলেটের আঞ্চলিক শ্রম দপ্তরের উপ-পরিচালক বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান করেন।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন সিলেট জেলা রিক্সা শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি ইয়াসিন খান, সাধারণ সম্পাদক মোঃ আবু বকর সিদ্দিক, বিশিষ্ট শ্রমিক নেতা আনোয়ার হোসেন আনাই, সংগঠনের সহ সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক দীন ইসলাম, কোষাধ্যক্ষ মিজানুর রহমান মোল্লা, প্রচার সম্পাদক কুরবান আলী, সদস্য মোবারক আলী, শ্রমিকনেতা আবুল হোসেন, আবুল কাশেম, সালমান আহমদ, বোরহান উদ্দিন বিরাই, কাওছার আহমদ প্রমুখ।
স্মারকলিপি সূত্রে জানা যায়, সিলেট জেলা রিক্সা শ্রমিক ইউনিয়ন সিলেটের রিক্সা শ্রমিকদের ন্যায্য দাবি আদায়ে একটি পুরতান সংগঠন। ১৯৯৩ সাল থেকে সিলেটের রিক্সা শ্রমিকদের বিভিন্ন সমস্যা সমাধানে ও দাবী আদায়ের লক্ষ্যে এই সংগঠন কাজ করে যাচ্ছে। বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলা থেকে আগত এই শ্রমিকরা কঠোর পরিশ্রম করে সাধারণ মানুষের যাতায়াত ব্যবস্থার উল্লেখযোগ্য ভ‚মিকা রেখে যাচ্ছে। বিশ^ব্যাপী করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে সিলেটের জনসাধারণ কম চলাচল করছেন ফলে সাধারণ শ্রমিকদের রোজগার একেবারে কমে যাচ্ছে। অত্যন্ত পরিতাপের বিষয় যে, বিত্তবানরা বিপুল পরিমাণ খাদ্যদ্রব্য মজুত করছেন। ফলশ্রæতিতে অসাধু ব্যবসায়িরা দ্রব্য মূল্যের দাম অস্বাভাবিকভাবে বৃদ্ধি করেছেন। এহেন পরিস্থিতিতে দ্রব্য মূল্য শ্রমিকদের ক্রয় ক্ষমতার বাইরে চলে যাচ্ছে। এতে শ্রমিকরা অনেকটা কষ্টে জীবনানিপাত করছেন। এই পরিস্থিতি অব্যহত থাকলে সিলেটের রিক্সা শ্রমিকরা অমানবিক কষ্টে নিপতিত হবে। বিষয়টি অতীব জরুরী বিধায় দ্রব্য মূল্যের ঊর্ধ্বগতি রোধ ও সিলেটের দরিদ্র রিক্সা শ্রমিকদের সরকারি সাহায্যের আওতায় নিয়ে আসার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণে জেলা প্রশাসক সহ সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন রিক্সা শ্রমিক নেতৃবৃন্দ।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2019
Bengali English