২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০২:০৪ অপরাহ্ন, ১৮ই শাবান, ১৪৪৫ হিজরি, বৃহস্পতিবার, ১৬ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

নোটিশ
জরুরী ভিত্তিতে কিছুসংখ্যক জেলা-উপজেলা প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে যোগাযোগ- ০১৭১২৫৭৩৯৭৮
সর্বশেষ সংবাদ :
হিজাব না পরায় ৯ ছাত্রীর চুল কেটে দিলেন শিক্ষিকা বাউফলে অনুমোদন ছাড়াই ক্লিনিক চালানো সেই ভুয়া ডাক্তার কারাগারে পুলিশ সদস্যের হাতে মাদক দেখলেই চাকরি যাবে: আইজিপি বাড়িতে বাবার লাশ এসএসসি পরীক্ষা কেন্দ্রে মেয়ে তেঁতুলিয়ায় আওয়ামী লীগ নেতার মৃত্যু সুন্দরগঞ্জের বামনডাঙ্গায় ৪ পুলিশ হত্যা দিবস পালিত ঝালকাঠিতে ভোক্তা অধিকারের অভিযান দুটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে ২৮ হাজার টাকা জরিমানা গৌরনদী কাঁঠালতলী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত দর্শনা থানার ২য় প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী আজ, ৪ বছরে ৪ ওসি মাদকাসক্ত ছেলেকে ভ্রাম্যমাণ আদালতে দিলেন বাবা ফেসবুকে কমেন্ট করায় যুবক খুন
পবিত্র কাবা ও মসজিদে নববীতে বিয়ের অনুমতি দিল সৌদি

পবিত্র কাবা ও মসজিদে নববীতে বিয়ের অনুমতি দিল সৌদি

আজকের ক্রাইম ডেক্স : পবিত্র কাবা শরিফ ও মসজিদে নববীতে বিয়ে পড়ানোর অনুমতি দিয়েছে সৌদি সরকার। সৌদি আরবের দৈনিক আল ওয়াতানের বরাতে শনিবার (২৭ জানুয়ারি) এ তথ্য জানিয়েছে মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম গালফ নিউজ।

সংবাদমাধ্যমটির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, পবিত্র মক্কা ও মদিনায় যেন বিয়ে পড়ানো যায়, সেজন্য এই উদ্যোগ নিয়েছে সৌদির হজ ও ওমরাহ মন্ত্রণালয়। মক্কা ও মদিনায় আসা হজ ও ওমরাহ যাত্রীদের অভিজ্ঞতাকে আরও সমৃদ্ধ করতে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

সৌদি সরকারের এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছেন ইসলামি বিশেষজ্ঞরা। তাদের মতে, মক্কা ও মদিনার সম্মান ও পবিত্রতার বিষয়টি মাথায় রেখে বিয়ের অনুষ্ঠানগুলো আয়োজনের ক্ষেত্রে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের জন্য ‘ব্যতিক্রম আইডিয়া’ নিয়ে আসার এটি একটি বড় সুযোগ তৈরি হয়েছে।

সৌদি বিবাহ কর্মকর্তা মাজউন মুসায়েদ আল জাবরি বলেছেন, মসজিদে বিয়ের কবুল পড়ানো ইসলামে অনুমোদিত। এর ব্যাখ্যায় তিনি বলেন, মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সাল্লেল্লাহ আলাইহে ওয়া সাল্লাম) নিজেই মসজিদে একজন সাহাবির বিয়ের অনুষ্ঠান পরিচালনা করেছিলেন।

আল জাবরি আরও বলেন, মদিনায় মসজিদে নববীতে বিয়ে পড়ানোর বিষয়টি ইতোমধ্যে স্থানীয়দের কাছে একটি সাধারণ রীতিতে পরিণত হয়ে গেছে। এর কারণও ব্যাখ্যা করেন তিনি। আল জাবরি বলেন, বিভিন্ন কারণে মদিনাবাসী এটি করেন।

মদিনায় বিয়েতে সব আত্মীয়-স্বজনকে দাওয়াত দেওয়া ঐতিহ্যগত রীতি। বেশিরভাগ সময়ই কনের পরিবার সব অতিথিকে ঘরে জায়গা করে দিতে পারেন না। ফলে মসজিদে নববী বা কুবা মসজিদে (ইসলামে নির্মিত প্রথম মসজিদ) এসে কবুল পড়ানোর কাজটি সম্পাদন হয়।

তিনি জানান, এছাড়া সৌদি আরবের অনেকেই বিশ্বাস করেন যে, মসজিদে বিয়ে পড়ানো ‘আশীর্বাদ ও সৌভাগ্য’ নিয়ে আসে। এক্ষেত্রে মসজিদে নববী ও কাবায় বিয়ে পড়ানোর বিষয়ে বেশ কিছু নিয়মকানুন মানতে হবে বলে জানান তিনি। সৌদির এ বিবাহ কর্মকর্তা বলেন, ‘উচ্চ শব্দ করে মুসল্লিদের মনোযোগ নষ্ট করা যাবে না। মসজিদগুলোর পবিত্রতা রক্ষা করতে হবে এবং কফি, মিষ্টিসহ অন্যান্য খাবার বেশি পরিমাণে আনা যাবে না। ’

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2019