শুক্রবার, ৩০ Jul ২০২১, ১২:৩৬ অপরাহ্ন

লিড নিউজ
চাকরির পেছনে না ছুটে উদ্যোক্তা হওয়ার পরামর্শ প্রধানমন্ত্রীর। ভ্যাকসিন দেওয়া শেষ হলেই খোলা হবে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান: সংসদে প্রধানমন্ত্রী।বরিশাল-পটুয়াখালী হয়ে কুয়াকাটা পর্যন্ত ২৪৪ কিলোমিটার রেললাইন ২০৩০ সালে শেষ করার আশা।
লোকে সাকিবের বিরুদ্ধে কথা বলার সাহস দেখায় কীভাবে: মুশফিক।

লোকে সাকিবের বিরুদ্ধে কথা বলার সাহস দেখায় কীভাবে: মুশফিক।

অনলাইন ডেস্ক

নিষেধাজ্ঞা থেকে ফেরার পরে যেন খেই হারিয়ে ফেলেছিলেন সাকিব আল হাসান। ঠিকমতো অলরাউন্ডিং পারফরমেন্স করতে পারছিলেন না। আর এতেই হতাশ হয়ে পড়েন তার ভক্তরা। কেউ কেউ তো সাকিবের সামর্থ্য নিয়ে প্রশ্ন তোলেন।

তবে এবারের চলমান জিম্বাবুয়ে সিরিজে সাকিব আল হাসান নিজের জাত চেনালেন আরেকবার। এদিন জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে চাপের মুখে অপরাজিত ৯৬ রানের ইনিংস খেলেন তিনি। ১০৯ বলে ৮ চারে সাজানো সেই ইনিংসে ভর করেই হারারেতে সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডে জিতেছে বাংলাদেশ। আর এর মাধ্যমে এক ম্যাচ হাতে রেখে জিতেছে সিরিজও।

এদিন সাকিবের হয়ে শুধু তাঁর ব্যাটই কথা বলেনি, বলেছেন তাঁর সতীর্থ মুশফিকুর রহিম। ম্যাচ জেতার পরে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সাকিব ও বাংলাদেশ দলের প্রশংসা করে একটি স্ট্যাটাসও দিয়েছেন। সেখানেই সাকিবের সমালোচনাকারীদের নিয়েও একটা প্রশ্ন করেছেন বাংলাদেশের অন্যতম সেরা এই ব্যাটসম্যান।

মুশফিক লিখেছেন, ‘আলহামদুলিল্লাহ।

সিরিজ জয়ের জন্য অভিনন্দন আমার ছেলেদের। ফর্ম সাময়িক, জাতটা স্থায়ী। আমি বুঝি না, কয়েক ইনিংস ব্যর্থ হলেই লোকে সাকিবের বিরুদ্ধে কথা বলার সাহস দেখায় কীভাবে? সে একজন কিংবদন্তি এবং চিরদিনই বাংলাদেশের জন্য কিংবদন্তি হয়ে থাকবে। ওয়েল ডান সাকিব, মাই বয়!
প্রসঙ্গত, জিম্বাবুয়ে সফরে গিয়ে টেস্ট ম্যাচটি খেললেও ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজে খেলছেন না মুশফিক। করোনাক্রান্ত বাবা-মায়ের পাশে থাকতে ওয়ানডে সিরিজ শুরুর আগেই দেশে ফেরেন মুশফিক।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2019
Bengali English