সোমবার, ১২ এপ্রিল ২০২১, ১২:০৬ অপরাহ্ন

Notice :
প্রকাশ্যে ধূমপান করে তোপের মুখেপড়া এক তরুণীর ভিডিও ভাইরাল।চরমোনাই পীরের ওয়াজ মাহফিল বাতিল।বিএনপির কোনো নেতাকর্মী যেন পদ্মা সেতু পার না হয় বললেন শাজাহান খান।জাতীয় পরিচয়পত্রের তথ্য অনুযায়ী, ভাতাপ্রাপ্ত প্রায় দুই হাজার বীর মুক্তিযোদ্ধার বয়স ৫০–এর নিচে।করোনা আক্রান্ত কনের অভিনব পদ্ধতিতে বিয়ে (ভিডিও)আবাসিক হোটেলে জনপ্রিয় অভিনেত্রীর ঝুলন্ত মরদেহ।পুলিশে হঠাৎ বড় রদবদল।ইউটিউবে যাত্রা শুরু করছেন মিজানুর রহমান আজহারী।
সর্বশেষ সংবাদ :
আবুল হাসনাত আব্দুল্লাহ কাছে পৌর মেয়র লোকমান হোসেন ডাকুয়া সেরা।

আবুল হাসনাত আব্দুল্লাহ কাছে পৌর মেয়র লোকমান হোসেন ডাকুয়া সেরা।

বাকেরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের আগামীকাল ২৫ নভেম্বর সোমবারের কাউন্সিলকে ঘিরে চারদিকে সাজসাজ রব।

নেতা-কর্মীদের মাঝে বইছে আনন্দের বন্যা। সেই সঙ্গে নেতা-কর্মীদের মধ্যে চলছে আলোচনা আর জল্পনা-কল্পনা। আগামী ৩ বছরের জন্য কে নেতৃত্ব দিবেন ঐহিত্যবাহী এ সংগঠনটির। বিশেষ করে সাম্প্রতিক সময়ে সরকার ও দলের ভেতরে শুদ্ধি অভিযানে আওয়ামীলীগ ও যুবলীগের কয়েক নেতার গ্রেপ্তার ও নেতিবাচক সমালোচনায় ইমেজ সঙ্কট কাটাতে ক্লিন ইমেজদের হাতে নেতৃত্বের ভার তুলে দেয়ার দাবি ওঠে। এ কারনেই ত্যাগী, স্বচ্ছ, দলের প্রতি নিবেদিত, পদ প্রত্যাশীরা এখন বেশ চাঙ্গা।

বাকেরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও একাধিকবার নির্বাচিত পৌর মেয়র লোকমান হোসেন ডাকুয়ার নাম এখন আওয়ামীলীগের তৃণমূল নেতা-কর্মীদের মুখে মুখে। বাকেরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্বে আবারও তাকে দেখতে চায় তৃণমূল নেতা-কর্মীরা।

এজন্য তৃণমূল নেতা-কর্মীরা দক্ষিণাঞ্চল আওয়ামীলীগের কান্ডারী বরিশাল জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ¦ আবুল হাসনাত আব্দুল্লাহ এমপির কাছে এ বিষয়ে তাদের দাবিও তুলেন।

তবে যাকে নিয়ে এত কিছু সেই পৌর মেয়র লোকমান হোসেন ডাকুয়া এ প্রতিবেদকের কাছে বলেন, আওয়ামীলীগ বিরোধী দলে থাকাবস্থায় বাকেরগঞ্জ উপজেলার হাল ধরেছিলাম। জোট সরকারের আমলে বিএনপি-জামায়াতের অত্যাচার-নিপীড়ন ও মামলা-হামলার স্বীকার হয়েছি অনেক।

সরকার বিরোধী আন্দোলন করতে গিয়ে জেল খেটেছি। হুলিয়া মাথায় নিয়ে ঘূরেছি। ফেরারী জীবন যাপন করেছি। কিন্তু এরপরও আওয়ামীলীগের আদর্শ থেকে দুরে সরে যাইনি। সব সময় শীর্ষ নেতৃত্বের নির্দেশনায় কাজ করেছি। এখন দল ক্ষমতায়। কখনও নিজের প্রয়োজনে কিংবা ভোগ বিলাসের জন্য দলের কাছে কিছু প্রত্যাশা করিনি। আজো করবো না। আমার রাজনৈতিক অভিভাবক আলহাজ¦

আবুল হাসনাত আব্দুল্লাহ এমপি যদি আবারও আমাকে যোগ্য মনে করে উপজেলা আওয়ামীলীগের গুরুত্বপূর্ণ কোন পদের দায়িত্ব দেয়, তবেই আমি দায়িত্ব গ্রহন করতে ইচ্ছুক।
তিনি আরও বলেন, বিগত আট বছর আগে ২০১২ সালে উপজেলা আওয়ামীলীগের কাউন্সিলের আমি সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হই। বিশেষ করে আমাদের সকলের অভিভাবক আলহাজ¦ আবুল হাসনাত আব্দুল্লাহ এমপির অনুপ্রেরণা পেলে দল ও দেশের স্বার্থে নিজেকে উৎসর্গ করকে সর্বদা প্রস্তুত আছি। আমি তার নির্দেশনা পেলে নিজেকে সংগঠনের স্বার্থে উজাড় করে দিবো এ প্রতিশ্রুতি দিতে পারি।

আপ্রাণ চেষ্টা করবো কতিপয় স্বার্থান্বেষী ব্যক্তির কারনে দলের হারানো ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনতে। নিজের নেতৃত্ব দিয়ে এ সংগঠনটির সকল সমালোচনার জবাব দিতে। তবে সব কিছ্ইু নির্ভর করে আমার রাজনৈতিক অভিভাবক আলহাজ¦ আবুল হাসনাত আব্দুল্লাহ এমপির ইচ্ছার উপর। তিনি যাকে যোগ্য মনে করবেন তার হাতেই দায়িত্বভার তুলে দিবেন। দলের একজন নিবেদিত কর্মী হিসেবে তিনি যে নির্দেশনা দিবেন সেটাই মেনে নিবো।

মেয়র লোকমান হোসেন ডাকুয়া ১৯৮৪ সালে বাকেরগঞ্জ জে.এস.ইউ মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের সভাপতি পদ গ্রহনের মধ্য দিয়ে ধারাবাহিকভাবে ১৯৯২ সনে সরকারি বাকেরগঞ্জ কলেজ ছাত্র সংসদের ভিপি নির্বাচিত হন। তখন থেকেই উপজেলার ১৪টি ইউনিয়নে তার অবাদ বিচরন। পরবর্তীতে তিনি ২০১১ সালে প্রথম মেয়র নির্বাচিত হন।

২০১২ সালে দায়িত্ব পান বাকেরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগ এর সাধারন সম্পাদকের। অবহেলিত পৌরসভাকে দ্বিতীয়বারের মত মেয়র নির্বাচিত হয়ে বি-গ্রেড থেকে এ-গ্রেডে উন্নিত করেছেন। শুধু পৌরসভাই নয় এখন পুরো উপজেলা জুড়েই তৈরী হয়েছে লোকমান হোসেন ডাকুয়ার রাজনৈতিক শক্তবলায়।

১৯৮৯ সালে স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলনে দীর্ঘদিন কারাবরণ ও ১৯৯২ সালে বিএনপি-জামাত জোটের রোশানলের শিকার হয়ে দীর্ঘদিন বিশেষ ক্ষমতা আইনে (ডিটেনশনে) ছিলেন। সাংগঠনিক কার্যক্রম পরিচালনায় বিভিন্ন সময়ে অনেক মামলা-হামলার শিকারও হয়েছিলেন তিনি।

কিন্তু নিজে কখনো বঙ্গবন্ধুর আদর্শ থেকে বিচ্যূত হননি। আওয়ামীলীগের আসন্ন কাউন্সিলরকে সামনে রেখে বিভিন্ন দিক বিবেচনায় ক্লিন ইমেজের নেতৃত্ব খুঁজছে দলটি। বিগত দিনে দলে বিভিন্ন অপশক্তির হাতে জিম্মি আওয়ামীলীগকে পরিচ্ছন্ন ভাবমূর্তিতে ফিরিয়ে আনতে যেকোনো মূল্যে ত্যাগী ও আস্থাভাজন নেতৃত্বের হাতে আওয়ামীলীগ ফিরে পাবে প্রান, এমনটাই আশা করছেন দলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা ও নীতি নির্ধারনী মহল। আস্থাশীল নেতৃত্ব হিসেবে ক্লীন ইমেজ এর সৎ পরিচ্ছন্ন রাজনীতিবিধ হিসেবে অনেকের মুখে এখন পৌর মেয়র লোকমান হোসেন ডাকুয়ার নাম শোনা যাচ্ছে।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2019
Bengali English