১৬ Jun ২০২৪, ০৬:৪৬ অপরাহ্ন, ৯ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি, রবিবার, ২রা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নোটিশ
জরুরী ভিত্তিতে কিছুসংখ্যক জেলা-উপজেলা প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে যোগাযোগ- ০১৭১২৫৭৩৯৭৮
সর্বশেষ সংবাদ :
স্বামী বিদেশ, টাকা-স্বর্ণালংকার নিয়ে ভাতিজার সঙ্গে উধাও চাচি সিলেট সুরমা ও কুশিয়ারা নদীর পানি বিপৎসীমার উপরে ঝালকাঠিতে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২ বিরামপুর দিওড় ইউনিয়নে স্বল্পমূল্যে টিসিবির পণ্য বিতরণ করেন-চেয়ারম্যান বামনডাঙ্গায় বুড়িমারী এক্সপ্রেস ট্রেনের যাত্রা বিরতির দাবীতে আবারো মানববন্ধন ও গণ অবস্থান কর্মসূচি জনপথ বিভাগ ও স্কুল এন্ড কলেজের জায়গা দখল সংবাদ প্রচার করায় সাংবাদিককে হত্যার হুমকি, থানায় জিডি প্রধানমন্ত্রীর সুদক্ষ নেতৃত্বে দেশ এখন উন্নয়নের রোল মডেল -নাঈমুজ্জামান ভূইয়া মুক্তা দেহেরগতি ইউনিয়নে ঈদ উপহারের চাল পেল ১৭২৪ টি পরিবার আগৈলঝাড়ার রাজিহার ইউনিয়নে ঈদে সরকারের খাদ্য সহায়তা পেলেন ২৯৪৭ পরিবার বানারীপাড়ায় ব্যবসায়ী সালাম গোলন্দাজ হত্যা মামলা আড়াল করতে স্বাক্ষীদের বিরুদ্ধে ধর্ষণ চেষ্টা মামলা
বরিশালে যৌন হয়রানির দায়ে বরখাস্ত হওয়া শিক্ষকের মামলা

বরিশালে যৌন হয়রানির দায়ে বরখাস্ত হওয়া শিক্ষকের মামলা

আজকের ক্রাইম ডেক্স : বরিশালে যৌন হয়রানির দায়ে বরখাস্ত হওয়া শিক্ষক শিক্ষাবোর্ড চেয়ারম্যানসহ ৮ জনের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা করেছে। বুধবার (১৫ মে) দুপুরে বরিশালের বিজ্ঞ সদর সিনিয়র সহকারী জজ আদালতে এই মামলা করেন শিক্ষক মইদুল ইসলাম।

আদালতের বিচারক হাসিবুল হাসান ১০ কার্যদিবসের মধ্যে সিসি ক্যামেরার ফুটেজসহ অভিযুক্তদের কাছে ব্যাখ্যা চেয়েছে আদালত। এঘটনায় আসামিরা হলেন, স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি, প্রধান শিক্ষক, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার, জেলা শিক্ষা অফিসার, মাধ্যমিক শিক্ষা অধিদপ্তর বরিশালের উপ-পরিচালক, শিক্ষাবোর্ড চেয়ারম্যান এবং শিক্ষাবোর্ডের বিদ্যালয় পরিদর্শক।

মামলা সূত্রে জানা যায়, বরিশাল নগরীর ঐতিহ্যবাহী হালিমা খাতুন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে গত ৫ মে ১৩ ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগ তোলা হয় ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে। এরপর ৯ মে তাকে স্কুল থেকে বরখাস্ত করা হয়। বরখাস্ত হওয়া শিক্ষকের দাবি, কোচিং বাণিজ্যের ভাগবাটোয়ারা নিয়েই মূলত দ্বন্দ্ব।

সেকারণে জোর করে ওই ছাত্রীদের দিয়ে একটি কাগজে সই নিয়ে তার বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ তোলা হয়। যে কারণে আদালতের স্বরণাপন্ন হয়েছেন বরখাস্ত হওয়া শিক্ষক মইদুল ইসলাম। তিনি ৫ মে ওই স্কুলে চালু থাকা সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে ঘটনার তদন্ত সাপেক্ষে বিচার দাবি করেছেন।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2019