শুক্রবার, ২৫ Jun ২০২১, ০৪:২৭ অপরাহ্ন

Notice :
চাকরির পেছনে না ছুটে উদ্যোক্তা হওয়ার পরামর্শ প্রধানমন্ত্রীর
সর্বশেষ সংবাদ :
পটুয়াখালীতে প্রকাশ্যে ছাত্রলীগ নেতার দুই হাতের রগ কর্তন, দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার। পদ্মা সেতুতে গ্যাসের পাইপলাইন বসানোর কাজ চলছে। রাজধানীতে ২০ কোটি টাকার জাল স্ট্যাম্প-কোর্ট ফিসহ গ্রেফতার ৪। ডোপ টেস্টে পজিটিভ হলে সরকারি চাকরি হবে না” স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। জিনের আছরে’ নারকেল গাছে নারী, নামাল ফায়ার সার্ভিস। শাটডাউন হবে ‘কারফিউয়ের’ মতো। বরিশালের বাকেরগঞ্জে প্রতারক বন্ধন রফিক গ্রেফতার। ডাচ-বাংলা এজেন্ট ব্যাংকিংয়ের কোটি টাকা নিয়ে উধাও ছাত্রলীগ নেতা। সিলেটের গোলাপগঞ্জ বাঘা ইউনিয়ন জাপার ৫১ সদস্য আহ্বায়ক কমিটি গঠন। এমন সম্মান শুধু আল্লাহই দিতে পারেন: নতুন সেনাপ্রধান।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সরকার বিদ্যুৎ খাতে ভর্তুকি দিচ্ছে জানিয়ে দেশবাসীকে তা ব্যবহারে আরও সাশ্রয়ী হওয়ার আহ্বান ।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সরকার বিদ্যুৎ খাতে ভর্তুকি দিচ্ছে জানিয়ে দেশবাসীকে তা ব্যবহারে আরও সাশ্রয়ী হওয়ার আহ্বান ।

দেশে প্রতি ইউনিট বিদ্যুৎ উৎপাদনে যে অর্থ খরচ হয় এর চেয়ে কমে জনসাধারণকে বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সরকার বিদ্যুৎ খাতে ভর্তুকি দিচ্ছে জানিয়ে দেশবাসীকে তা ব্যবহারে আরও সাশ্রয়ী হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

বুধবার সকালে গণভবনে একটি অনুষ্ঠানে বক্তব্য দিচ্ছিলেন প্রধানমন্ত্রী। সাতটি বিদ্যুৎকেন্দ্র উদ্বোধন এবং ২৩টি উপজেলাকে শতভাগ বিদ্যুতায়নের আওতায় আনা উপলক্ষে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

প্রধানমন্ত্রী জানান, ২০২০-২১ সাল হচ্ছে মুজিব বর্ষ। এই মুজিব বর্ষে দেশবাসীকে শতভাগ বিদ্যুতের আওতায় আনা হবে।

শেখ হাসিনা বলেন, এখন আমরা ২৩ হাজার মেগাওয়াটের বেশি বিদ্যুৎ উৎপাদন করছি। বিদ্যুৎ উৎপাদনের সঙ্গে সঙ্গে তা সঞ্চালন ও বিতরণ গুরুত্বপূর্ণ। সরকার এই কাজটি দক্ষতার সঙ্গে করছে বলে জানান তিনি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ২১ বছর পর ১৯৯৬ সালে যখন আমরা ক্ষমতায় আসি তখন দেশ ছিল অন্ধকারে। আমরা তখন বেসরকারিভাবে বিদ্যুৎ উৎপাদনের ওপর জোর দিই। কলকারখানার মালিকদের বলি অল্প করে হলেও বিদ্যুৎ উৎপাদন করতে। আমরা তখন জেনারেটরের ওপর থেকে ট্যাক্স তুলে দিই।

শেখ হাসিনা জানান, তারা যখন ২০০১ সালে সরকার থেকে যান তখন বিদ্যুতের রিজার্ভ ছিল চার হাজার ৩০০ মেগাওয়াট। সাত বছর পর আবার ক্ষমতায় এসে দেখেন এই দীর্ঘ সময়ে বিদ্যুৎ উৎপাদন বাড়েনি, বরং একশ মেগাওয়াট কমেছে।

প্রধানমন্ত্রী জানান, দ্বিতীয়বারের মতো ক্ষমতায় এসে তারা বিদ্যুৎ উৎপাদনের দিকে জোর দেন। বর্তমানে দেশে ২৩ হাজার মেগাওয়াটের বেশি বিদ্যুৎ উৎপাদন হচ্ছে। এই পরিমাণ দিন দিন শুধু বাড়তে থাকবে এবং দেশের শতভাগ মানুষকে বিদ্যুতের আওতায় নিয়ে আসা হবে।

বর্তমানে দেশের ৯৪ ভাগ মানুষ বিদ্যুতের আওতায় চলে এসেছে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘কেউ অন্ধকারে থাকবে না, সবখানে আলো জ্বলবে।’

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2019
Bengali English