২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১:৫২ পূর্বাহ্ন, ১৪ই শাবান, ১৪৪৫ হিজরি, রবিবার, ১২ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

নোটিশ
জরুরী ভিত্তিতে কিছুসংখ্যক জেলা-উপজেলা প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে যোগাযোগ- ০১৭১২৫৭৩৯৭৮
সর্বশেষ সংবাদ :
ঝালকাঠিতে বীর মুক্তিযোদ্ধার গম চাষে নজর কেড়েছে তরুণ উদ্যোক্তাদের বাবুগঞ্জে আশার পক্ষ থেকে চিৎিসা সহায়তা প্রদান এসিল্যান্ড পরিচয়ে ব্যবসায়ীদের কাছে টাকা দাবি বরিশালে ফুটওভার ব্রিজ নির্মাণের দাবীতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত রাষ্ট্রীয় পদক পাচ্ছেন কেএমপি’র তিন পুলিশ কর্মকর্তা ফেসবুকে ‘বলার ছিল অনেক কিছু’ লিখে ফাঁস দিল এসএসসি পরীক্ষার্থী বানারীপাড়ায় অবসরপ্রাপ্ত পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্মকর্তা আব্দুল মতিন চৌধুরীর ইন্তেকাল বানারীপাড়ায় বন্দর মডেল স্কুলে তিনদিন ব্যাপি বার্ষিক ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত শিক্ষক-কর্মচারী কো-অপরেটিভ ক্রেডিট ইউনিয়ন লিঃ এর ১৭তম বার্ষিক সাধারণ সভা আগৈলঝাড়ায় অনুষ্ঠিত মুজিব”একটি জাতির রুপকার প্রদর্শিত হলো বরিশালের গৌরনদী
পড়াশুনা ও চাকুরী জীবনে নানান ধ’র্মের মানুষের সাথে চলাফেরার মাধ্যমে সর্বশেষ বুঝতে পারলেন ইসলাম ধ’র্মই।

পড়াশুনা ও চাকুরী জীবনে নানান ধ’র্মের মানুষের সাথে চলাফেরার মাধ্যমে সর্বশেষ বুঝতে পারলেন ইসলাম ধ’র্মই।

মোঃ তহিরুল ইসলাম নিজস্ব প্রতিনিধি::-

হিন্দু ধ’র্মাবলম্বী ডাক্তার ইন্দ্রানী বণিক জান্নাতুল রহমান পড়াশুনা ও চাকুরী জীবনে নানান ধ’র্মের মানুষের সাথে চলাফেরার মাধ্যমে সর্বশেষ বুঝতে পারলেন ইসলাম ধ’র্মই একমাত্র শান্তির ধ’র্ম। ইসলাম ধ’র্মের নিয়ম-কানুন, রীতি-নীতি, আচার-আচারণ দেখে হিন্দু ধ’র্ম পরিত্যাগ করে একমাত্র শান্তির ধ’র্ম ইসলাম চলতি বছরের আগস্ট মাসের ১৮ তারিখ গ্রহণ করেন। এতেই পরিবারের কাছে কাল হয়ে ধা’রায় ডাক্তার ইন্দ্রানী বণিক জান্নাতুল রহমান র। জান্নাতুল রহমানের উপর শুরু হয় বিভিন্ন ভাবে মানষিক নি’র্যাতন।
জানা গেছে, ঢাকার প্রথম শ্রেণীর ম্যাজিষ্ট্রেট নোটারী পাবলিক আদালতের মাধ্যমে হিন্দু ধ’র্ম পরিত্যাগ করে ইসলাম ধ’র্ম গ্রহণ করেন। হলফনামায় ডাক্তার ইন্দ্রানী বণিক জান্নাতুল রহমান উল্লেখ করেন, তিনি একজন প্রাপ্ত বয়স্কা মহিলা বাংলাদেশের স্থায়ী বাসিন্দা ও নাগরিক। ভালমন্দ বুঝতে ও যে কোন সিদ্ধান্ত গ্রহণ করিতে সম্পূর্ণ রুপে সক্ষম।
বাংলাদেশের প্রচলিত আইন অনুযায়ী স্বাধীনভাবে যে কোন সিদ্ধান্ত নেয়ার অধিকার তার আছে। দীর্ঘদিন যাবৎ পার্শ্ববর্তী ইসলাম ধ’র্মাবলম্বী মুসলিম ভাইদের সাথে চলাফেরার মাধ্যমে ও ইসলাম ধ’র্মের নিয়ম-কানুন, রীতি-নীতি, আচার-আচারণে বুঝতে পারেন, ইসলাম ধ’র্মই একমাত্র শান্তির ধ’র্ম। তাই আগস্ট মাসের ১৮ তারিখ একজন মাওলানার মাধ্যমে হিন্দু ধ’র্ম ত্যাগ করে ইসলাম ধ’র্মের কালেমা পাঠ করে ইসলাম ধ’র্ম গ্রহণ করেন। তিনি আরো উল্লেখ করেন, ইসলাম ধ’র্ম গ্রহণ করিয়াছি এবং স্বীকার করিয়াছি আল্লাহ এক তাহার কোন শরীক নাই। ইসলাম একমাত্র শান্তির ধ’র্ম।
সূত্রে জানা যায়, ইন্দ্রানী বণিক জান্নাতুল রহমান পিতা: মৃত্যু ডাক্তার বিকাশ দত্ত বণিক। পেশায় একজন ডাক্তার। গ্রামের বাড়ী মৈতেরী, শ্রেনাথ চ্যাটার্জী লেন, বগু’ড়া রোড় বরিশাল। বর্তমান ঠিকানা উত্তরা, বিমান বন্দর ঢাকা। ইন্দ্রানী বণিক জান্নাতুল রহমান এর পরিচয় যশোরের ছেলে ঢাকার বাসিন্দা ও একটি প্রথম শ্রেণীর বেসরকারী প্রতিষ্ঠানের জিএম আশিকুর রহমানের সাথে। এক পর্যায় একে অ’পরকে ভালোবাসে। দীর্ঘদিনের ভালবাসার টানে নিজ হিন্দু ধ’র্ম পরিত্যাগ করে আগস্ট মাসের ১৮ তারিখ মুসলিম হয়ে নিজের নাম পরিবর্তন করে নাম রাখেন জান্নাতুল রহমান। পাশাপাশি একই দিনে আশিকুর রহমানের সঙ্গে বিয়ে আবাদ্ধ হন জান্নাতুল রহমান। সংসার বাঁধে দুই জনে।
সংসার জীবন ভালোই চলছিল আশিকুর ও জান্নাতুল রহমানের। বিষয়টি মেয়ের পরিবার জানতে পেরে, মেয়ের মা ও মামা কৌশলে অক্টোবর মাসের ১২ তারিখ মামা সুবাস বণিকের গ্রামের বাড়ী বরিশাল ঝালকাঠীতে এনে বন্দী করে রাখেন। এদিকে স্বামী আশিকুর রহমান স্ত্রীর মোবাইল বন্ধ পেয়ে বিভিন্ন জায়গায় খোঁজা-খুঁজি করেন পরে জান্নাতুল রহমানের মায়ের ফোনে কথা বলে নিশ্চিত হন তার স্ত্রী অথাৎ জান্নাতুল রহমানের মা মিনতি বণিক মামা বাড়ী নিয়ে আটক করে রেখেছেন।
পরের দিন অক্টোবর মাসের ১৩ তারিখ ঢাকার উত্তরা পশ্চিম থানায় একটি সাধারণ জিডি করেন। আশিকুর রহমানের দাবী তার স্ত্রীকে নির্যাতন করে মেরে ফেলবে অথবা ভারতে পাঠিয়ে দেবে মামা সুবাস বণিক ও তার পরিবার। এমন অ’ভিযোগ এনে আশিকুর ইতিপূর্বে অথাৎ গত মাসের ৩০ তারিখে ঝালকাঠী বিজ্ঞ নির্বাহী ম্যা’জিস্ট্রেট আদালতে স্ত্রী উদ্বারের জন্য একটি মামলা দায়েল করেন। বিচারক মামলা আমলে নিয়ে বিবাদী ইন্দ্রানী বণিক জান্নাতুল রহমান মামা ঝালকাঠীর ব্যবসায়ী সুবাস বনিক, সুবাস বণিকের ছেলে সুনিল বণিক ও ইন্দ্রানী বণিক জান্নাতুল রহমান এর মা মিনতি বণিককে আগামী ডিসেম্বর মাসের ৪ তারিখ স্ব-শরীরে হাজির হওয়ার নির্দেশ প্রদান করেন বিচারক।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2019