২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১:১২ অপরাহ্ন, ১৩ই শাবান, ১৪৪৫ হিজরি, শনিবার, ১১ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

নোটিশ
জরুরী ভিত্তিতে কিছুসংখ্যক জেলা-উপজেলা প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে যোগাযোগ- ০১৭১২৫৭৩৯৭৮
সর্বশেষ সংবাদ :
বরিশালে ফুটওভার ব্রিজ নির্মাণের দাবীতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত রাষ্ট্রীয় পদক পাচ্ছেন কেএমপি’র তিন পুলিশ কর্মকর্তা ফেসবুকে ‘বলার ছিল অনেক কিছু’ লিখে ফাঁস দিল এসএসসি পরীক্ষার্থী বানারীপাড়ায় অবসরপ্রাপ্ত পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্মকর্তা আব্দুল মতিন চৌধুরীর ইন্তেকাল বানারীপাড়ায় বন্দর মডেল স্কুলে তিনদিন ব্যাপি বার্ষিক ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত শিক্ষক-কর্মচারী কো-অপরেটিভ ক্রেডিট ইউনিয়ন লিঃ এর ১৭তম বার্ষিক সাধারণ সভা আগৈলঝাড়ায় অনুষ্ঠিত মুজিব”একটি জাতির রুপকার প্রদর্শিত হলো বরিশালের গৌরনদী লাইসেন্সবিহীন প্যাথলজি সেন্টারকে জরিমানা ও বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে গৌরনদীতে এসএসসি পরীক্ষার্থীর অভিভাবকের কাছ থেকে ঘুস গ্রহণকালে ধরা কর্মকর্তা টাকা ভাগাভাগির দ্বন্দ্বে ৩ দিন পর দাফন হলো মরদেহ
প্রেমের টানে প্রেমিকের কাছে ছুটে এসে লাশ হয়ে ফিরলেন। আজকের ক্রাইম নিউজ ডট কম

প্রেমের টানে প্রেমিকের কাছে ছুটে এসে লাশ হয়ে ফিরলেন। আজকের ক্রাইম নিউজ ডট কম

যশোরের বাঘারপাড়ায় উদ্ধার হওয়া অজ্ঞাত মরদেহের পরিচয় মিলেছে। তার নাম জয়নব খাতুন (১৩)। জয়নব নড়াইল সদর উপজেলার মির্জাপুর গ্রামের জিয়াউর শেখের মেয়ে। সে উপজেলার মির্জাপুর দক্ষিণপাড়া খাদিজাতুল কোবরা মহিলা কওমি মাদরাসার পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রী। গত সোমবার বিকেলে যশোরের বাঘারপাড়া উপজেলার ভাঙ্গুড়া বাজারের দক্ষিণ-পূর্ব পাশে মাঠের মধ্যে মাছের ঘের থেকে ভাসমান অবস্থায় পুলিশ তার মরদেহ উদ্ধার করে।

এলাকাবাসীর ভাষ্য, প্রেমের টানে প্রেমিকের কাছে ছুটে এসেছিল পঞ্চম শ্রেণিতে পড়ুয়া মাদরাসাছাত্রীটি। বাড়ি থেকে বের হওয়ার সময় বাবার মুঠোফোন, নিজের জামা-কাপড় এবং চার হাজার টাকাও নিয়ে এসেছিল সে। কিন্তু শেষ রক্ষা হয়নি তার। সেই প্রেমিকই তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে মরদেহ মাছের ঘেরের পানিতে ফেলে দিয়েছে।

এ ঘটনায় নিহতের বাবা জিয়াউর শেখ বাদী হয়ে মজিবুল ইসলামকে (২৫) আসামি করে মঙ্গলবার বাঘারপাড়া থানায় হত্যা মামলা করেছেন। পুলিশ এখন পর্যন্ত মজিবুল ইসলামকে গ্রেফতার করতে পারেনি। মজিবুল ইসলাম যশোর সদর উপজেলার চাঁনপাড়া গ্রামের মোশারফ হোসাইনের ছেলে।

মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, জিয়াউর শেখের বড় জামাই যশোর সদর উপজেলার চাঁনপাড়া গ্রামের দারুল নাঈম জামে মসজিদের ইমাম। মসজিদের পাশের ভবনে স্ত্রীকে তিনি বসবাস করেন। সেই সূত্রে জয়নব মাঝে মধ্যে জামাইয়ের বাসায় আসতো। প্রায় এক মাস আগে চাঁনপাড়া গ্রামের মজিবুল ইসলামের সঙ্গ তার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। গত রোববার বিকেল ৪টার দিকে জয়নব গোপনে তার ব্যবহৃত জামা-কাপড়, নগদ চার হাজার টাকা এবং একটি মোবাইল ফোন নিয়ে বাড়ি থেকে বের হয়ে যায়। এরপর সে আর বাড়িতে ফেরেনি। অনেক খোঁজাখুঁজি করেও তার কোনো সন্ধান পাওয়া যায়নি। এরপর রোববার রাত সাড়ে ৮টার দিকে মজিবুল ইসলামের মোবাইল ফোনে কল করা হলে তিনি কল রিসিভ করেন। জয়নবের কথা জানতে চাইলে তিনি কল কেটে দেন। এরপর বেশ কয়েকবার কল করা হলেও তিনি কল রিসিভ করেননি।

জয়নবের চাচা আজানুর রহমান শেখ বলেন, প্রেমের সম্পর্কের কারণে জয়নব রোববার বিকেলে গোপনে মজিবুল ইসলামের সঙ্গে বাড়ি থেকে বের হয়ে যায়। পরদিন সোমবার দিবাগত রাত দেড়টার দিকে জয়নবের মরদেহ উদ্ধারের খবর পেয়েছি। মজিবুল ইসলাম তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে মাছের ঘেরের পানিতে ফেলে দিয়েছে।

বাঘারপাড়া থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জসীম উদ্দীন বলেন, প্রেমের কারণে বাড়ি থেকে বের হয় জয়নব। পরে প্রেমিকই তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছে। এ ব্যাপারে মামলা হয়েছে। আসামিকে গ্রেফতারের জন্য অভিযান চালানো হচ্ছে।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2019