শনিবার, ২৩ জানুয়ারী ২০২১, ০২:৪৪ অপরাহ্ন

Notice :
প্রকাশ্যে ধূমপান করে তোপের মুখেপড়া এক তরুণীর ভিডিও ভাইরাল।চরমোনাই পীরের ওয়াজ মাহফিল বাতিল।বিএনপির কোনো নেতাকর্মী যেন পদ্মা সেতু পার না হয় বললেন শাজাহান খান।জাতীয় পরিচয়পত্রের তথ্য অনুযায়ী, ভাতাপ্রাপ্ত প্রায় দুই হাজার বীর মুক্তিযোদ্ধার বয়স ৫০–এর নিচে।করোনা আক্রান্ত কনের অভিনব পদ্ধতিতে বিয়ে (ভিডিও)আবাসিক হোটেলে জনপ্রিয় অভিনেত্রীর ঝুলন্ত মরদেহ।পুলিশে হঠাৎ বড় রদবদল।ইউটিউবে যাত্রা শুরু করছেন মিজানুর রহমান আজহারী।
সর্বশেষ সংবাদ :
এস পি হিসেবে পদোন্নতি পাওয়ায় নাইমুল হককে ওসি আফজাল হোসেনের ফুলেল শুভেচছা। আজকের ক্রাইম-নিউজ এস পি হিসেবে পদোন্নতি পেলেন নাইমুল হক অতিরিক্ত পুুুলিশ সুুুপার(প্রশাসন) বরিশাল। আজকের ক্রাইম-নিউজ নব গঠিত দর্শনা থানা প্রেসক্লাব। আজকের ক্রাইম-নিউজ দর্শনা থানা পুলিশের মাদক বিরোধী অভিযানে ১২ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার, একজন নারী মাদক ব্যবসায়ী সহ আটক ২। আজকের ক্রাইম-নিউজ যশোরে প্রায় ২ লক্ষ ইউএস ডলারসহ ৪ হুন্ডি ব্যবসায়ী আটক। আজকের ক্রাইম-নিউজ আসন্ন দর্শনা পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র প্রার্থী নৌকার মাঝি মতিয়ার রহমানকে বিজয়ী করার লক্ষ্য নেতাকর্মীদের সাথে মতবিনিময় সভা। আজকের ক্রাইম-নিউজ দামুড়হুদার উত্তর চাঁদপুর জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে রক্তাত জখম মহিলা সহ আহত ৪। আজকের ক্রাইম-নিউজ আলমডাঙ্গা পৌর আওয়ামীলীগের নির্বাচনী মতবিনিময় সভায় মেয়র প্রার্থী হাসান কাদির গনুঃ- সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে নৌকার পক্ষে কাজ করতে হবে। আজকের ক্রাইম-নিউজ বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা বাস্তবায়নে রাত-দিন নিরালস কাজ করে যাচ্ছেন।পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী। আজকের ক্রাইম-নিউজ স্বামীর পুরুষাঙ্গ কেটে হাসপাতালে নিয়ে গেলেন স্ত্রী। আজকের ক্রাইম-নিউজ
মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত জামায়াত নেতা এটিএম আজহারুল ইসলামের ফাঁসির দণ্ড বহাল । আজকের ক্রাইম নিউজ ডট কম

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত জামায়াত নেতা এটিএম আজহারুল ইসলামের ফাঁসির দণ্ড বহাল । আজকের ক্রাইম নিউজ ডট কম

মুক্তিযুদ্ধকালে মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত জামায়াত নেতা এটিএম আজহারুল ইসলামের ফাঁসির দণ্ড বহাল রেখেছেন আপিল বিভাগ।

প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বে চার বিচারপতির আপিল বেঞ্চ বৃহস্পতিবার এই আদেশ দেন।

২, ৩ ও ৪ নাম্বার অভিযোগে সংখ্যাগরিষ্ঠাতার ভিত্তিতে আজহারের মৃত্যুদণ্ডের আদেশ বহাল রাখেন আপিল বিভাগের বিচারপতিরা। আর ৫ নাম্বার অভিযোগ থেকে তাকে খালাস দেওয়া হয়েছে।

এর আগে গত ১০ জুলাই আপিলের ওপর শুনানি শেষে সিএভি (রায় ঘোষণার জন্য অপেক্ষমান) রাখেন প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন আপিল বেঞ্চ।

২০১৪ সালের ৩০ ডিসেম্বর আজহারকে মৃত্যুদণ্ডের রায় ঘোষণা করে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল।

একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে রংপুর অঞ্চলে ১২৫৬ ব্যক্তিকে গণহত্যা-হত্যা, ১৭ জনকে অপহরণ, একজনকে ধর্ষণ, ১৩ জনকে আটক, নির্যাতন ও গুরুতর জখম এবং শতশত বাড়ি-ঘরে লুণ্ঠন ও অগ্নিসংযোগের মতো নয় ধরনের ছয়টি মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগ আনা হয় এটিএম আজহারের বিরুদ্ধে।

এসব অভিযোগের মধ্যে ১ নম্বর বাদে বাকি পাঁচটি অভিযোগই প্রমাণিত হয়েছে ট্রাইব্যুনালের রায়ে। ২০১৫ সালের ২৮ জানুয়ারি ১১৩ যুক্তিতে আজহারকে নির্দোষ দাবি করে খালাস চেয়ে আপিল করেন আজহার।

২০১৭ সালের ১৩ আগস্ট এক আদেশে আপিল বিভাগ আসামিপক্ষকে আপিলের সার-সংক্ষেপ দাখিলের নির্দেশ দেন। গত ১৮ জুন আপিলের ওপর শুনানি শুরু হয়। আসামিপক্ষে অ্যাডভোকেট অন রেকর্ড জয়নুল আবেদীনের পেপারবুক উপস্থাপনের মধ্য দিয়ে এ শুনানি শুরু হয়েছিল। ১ জুলাই থেকে যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শুরু হয়।

শুনানি শেষে গত ১০ জুলাই প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বে চার সদস্যের আপিল বিভাগের বেঞ্চ রায় ঘোষণার জন্য অপেক্ষমাণ (সিএভি) রেখেছিলেন।

১৯৬৮ সালে রংপুর জিলা স্কুল থেকে মেট্রিক পাস করে পরের বছর আজহারুল ইসলাম ভর্তি হন রংপুর কারামাইকেল কলেজে। একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধের সময় আজহার জামায়াতে ইসলামীর ছাত্র সংগঠন ইসলামী ছাত্রসংঘের জেলা কমিটির সভাপতি ও আলবদর বাহিনীর রংপুর শাখার কমান্ডার ছিলেন।

১৯৯১ সালে তিনি ঢাকা মহানগর জামায়াতের আমিরের দায়িত্ব পান এবং ২০০৫ সালে কেন্দ্রীয় কমিটির সেক্রেটারি জেনারেল হন।

২০১২ সালের ১৫ এপ্রিল আজহারের যুদ্ধাপরাধের তদন্ত শুরু করেন তদন্ত কর্মকর্তা এস এম ইদ্রিস আলী। ওই বছরের ২২ আগস্ট মগবাজারের বাসা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এরপর থেকে তিনি কারাগারেই আছেন।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2019
Bengali English