রবিবার, ১৩ Jun ২০২১, ১১:৫৬ অপরাহ্ন

Notice :
চাকরির পেছনে না ছুটে উদ্যোক্তা হওয়ার পরামর্শ প্রধানমন্ত্রীর
সর্বশেষ সংবাদ :
ধর্ষণ ও হত্যার চেষ্টা পরিমনির সংবাদ সম্মেলন। আপনি কি আপনার অধিকার থেকে বঞ্চিত। বাবুগঞ্জের কেদারপুর ইউপি নির্বাচনে জামাল উদ্দিনের পক্ষে প্রচারণায় সাবেক সাংসদ টিপু সুলতান। মা-ছেলেসহ তিনজনকে হত্যায় এএসআই সৌমেন বরখাস্ত। পরকীয়া’র জেরেই স্ত্রী-পুত্রসহ তিনজনকে হত্যা করেন সৌমেন। বাবুগঞ্জে ওসির ব্যক্তি উদ্যোগে মাছের পোনা অবমুক্ত করা হয়েছে। সিলেটের আইনজীবীকে ১০ টি ট্যাবলেট খাইয়ে হত্যার দায় স্বীকার স্ত্রীর। বাকেরগঞ্জের ওসিসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে আইজিপিকে হাইকোর্টের নির্দেশ। স্ত্রীকে ২ কোটি টাকার ফ্ল্যাট উপহার দিয়ে দুদকের জালে ঝালকাঠির সাব-রেজিস্ট্রার। পিরোজপুরে নেশার টাকা না পেয়ে বাবাকে কুপিয়ে জখম।
দেশে ক্যাসিনো বা অবৈধ জুয়া নিয়ে তোলপাড় সৃষ্টির আগে এ ব্যাপারে কোনো গণমাধ্যম কেন সংবাদ প্রচার করেনি।

দেশে ক্যাসিনো বা অবৈধ জুয়া নিয়ে তোলপাড় সৃষ্টির আগে এ ব্যাপারে কোনো গণমাধ্যম কেন সংবাদ প্রচার করেনি।

সম্প্রতি দেশে ক্যাসিনো বা অবৈধ জুয়া নিয়ে তোলপাড় সৃষ্টির আগে এ ব্যাপারে কোনো গণমাধ্যম কেন সংবাদ প্রচার করেনি এটা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।বলেছেন, ‘ক্যাসিনোর এত আধুনিক যন্ত্রপাতি দেশে এসেছে, এতকিছু হলো আপনারা (সাংবাদিকরা) কেউ খবর রাখলেন না? কেউ খবর পেলেন না? কখনো কেউ একটা নিউজ করলেন না? কীভাবে হয় এগুলো?’

মঙ্গলবার বিকালে গণভবনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন। ন্যাম সম্মেলনে যোগদান উপলক্ষে আজরবাইজানে চার দিনের সফর নিয়ে এই সংবাদ সম্মেলন আয়োজন করা হয়।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘ক্যাসিনো নিয়ে আপনারা (সাংবাদিকরা) কেউ কখনো নিউজ করেননি। কোনো সাংবাদিক, কোনো সংবাদপত্র একজন এটা নিয়ে নিউজ করেননি, যে বাংলাদেশে এমন ক্যাসিনো খেলা হয়।’

এসময় কেউ একজন নিউজ হয়েছে জানালে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘নো’ ‘নো’ কোথাও আমি নিউজ পাইনি। কোথাও আমি নিউজ দেখিনি। ক্যাসিনো সম্পর্কে কেউ কখনো নিউজ দেননি।

বিবিসি পরিচালক লোকমান হোসেন ভূঁইয়াকে নিয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘ক্যাসিনো খেলার সঙ্গে যারা জড়িত তাদের সঙ্গে তো আর ক্রিকেট বোর্ডের সম্পর্ক না। হয়ত একজন ছিল। সে রকম যদি আপনাদের সাংবাদিকদের মধ্যেও খোঁজ করা যায় দুই একজনকে পাওয়া যেতে পারে। ভবিষ্যতে যদি পাই তখন কী করব আমাকে বলেন? সেটাও তো আপনাদের ভাবতে হবে। আমার কথা রুঢ হলেও এটা বাস্তবতা।’

অপরাধ করে কখন কে কীভাবে ধরা পড়ে যায় ঠিক নেই জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, ‘যে ধরা পড়েছে তার সঙ্গে কিন্তু বোর্ডের সম্পর্ক না। আর সে যে বহাল তবিয়তে আছে তাও কিন্তু না। তাকে ধরা হয়েছে। ক্যাসিনো নিয়ে আপনারা (সাংবাদিকরা) কেউ কখনও নিউজ করেন নি। কোন সাংবাদিক, কোন সংবাদপত্র একজন এটা নিয়ে নিউজ করেননি যে বাংলাদেশে এমন ক্যাসিনো খেলা হয়।’

‘আমি যখন এখন প্রশ্ন করি আপনারা এত খবর রাখেন এ রকম আধুনিক আধুনিক যন্ত্রপাতি এসে গেছে, এতকিছু হলো আপনারা কেউ খবর রাখলেন না?’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমি খুঁজে বের করিয়েছিলাম; আমি অভিযান করিয়েছি এতে কোনো সন্দেহ নেই। কারণ আমি অকপটে স্বীকার করছি। আমার কাছে যেকোনোভাবে যখন খবর আসছে আমি সাথে সাথে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী সংস্থা এবং যাকে দিয়ে করালে ভালো যথাযথ হবে তাকে দিয়ে করিয়েছি।’

আমি যদি আপনাদের জিজ্ঞাসা করি এ রকম একটা বিষয় দেশে ঘটে যাচ্ছে নীরবে আর আমাদের এত মিডিয়া কেউ খবর প্রকাশ করল না। এত চ্যানেল কিন্তু কোন চ্যানেল একটা সংবাদ দিতে পারলেন না। সেই জবাব কি আপনার জাতির কাছে দিতে পারবেন বলে প্রশ্ন ছুড়ে দেন প্রধানমন্ত্রী।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘আমি জানি এই প্রশ্নের উত্তর দিতে পারবেন না। তাহলে আপনার কাকে দোষ দেবেন? ধরব আমরা আর প্রশ্নও করবেন আমাদের এটা তো হয় না? বরং আপনারা এখন খুঁজে বের করে আমাদের সাহায্য করেন কোথা কী পাওয়া যায়। এত বড় ঘটনায় কীভাবে সবাই নীরব ছিল হোয়াই? কী কারণে? কারণটা কী? মানুষ যখন কোনো অপরাধের সঙ্গে জড়ায় মনে করে আর কেউ জানবে না। কিন্তু ধরা কোনো না কোনোদিন তাকে পড়তে হয়, এটা হলো বাস্তবতা। আমরা চাচ্ছি দেশটা শান্তিপূর্ণভাবে চলুক। দেশের উন্নতিটা হোক।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2019
Bengali English