১৬ Jun ২০২৪, ০৭:২৯ অপরাহ্ন, ৯ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি, রবিবার, ২রা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নোটিশ
জরুরী ভিত্তিতে কিছুসংখ্যক জেলা-উপজেলা প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে যোগাযোগ- ০১৭১২৫৭৩৯৭৮
সর্বশেষ সংবাদ :
স্বামী বিদেশ, টাকা-স্বর্ণালংকার নিয়ে ভাতিজার সঙ্গে উধাও চাচি সিলেট সুরমা ও কুশিয়ারা নদীর পানি বিপৎসীমার উপরে ঝালকাঠিতে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২ বিরামপুর দিওড় ইউনিয়নে স্বল্পমূল্যে টিসিবির পণ্য বিতরণ করেন-চেয়ারম্যান বামনডাঙ্গায় বুড়িমারী এক্সপ্রেস ট্রেনের যাত্রা বিরতির দাবীতে আবারো মানববন্ধন ও গণ অবস্থান কর্মসূচি জনপথ বিভাগ ও স্কুল এন্ড কলেজের জায়গা দখল সংবাদ প্রচার করায় সাংবাদিককে হত্যার হুমকি, থানায় জিডি প্রধানমন্ত্রীর সুদক্ষ নেতৃত্বে দেশ এখন উন্নয়নের রোল মডেল -নাঈমুজ্জামান ভূইয়া মুক্তা দেহেরগতি ইউনিয়নে ঈদ উপহারের চাল পেল ১৭২৪ টি পরিবার আগৈলঝাড়ার রাজিহার ইউনিয়নে ঈদে সরকারের খাদ্য সহায়তা পেলেন ২৯৪৭ পরিবার বানারীপাড়ায় ব্যবসায়ী সালাম গোলন্দাজ হত্যা মামলা আড়াল করতে স্বাক্ষীদের বিরুদ্ধে ধর্ষণ চেষ্টা মামলা
পিরোজপুরের ভান্ডারিয়ায় ১২০ পিছ ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ

পিরোজপুরের ভান্ডারিয়ায় ১২০ পিছ ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ

পিরোজপুরের ভান্ডারিয়া উপজেলার লক্ষিপুরা গ্রাম থেকে মাদক কারবারী ইকবাল মল্লিক ও ভগ্নিপতি রেজাউল খানকে ১শ ২০ পিস ইয়াবাসহ গ্রেফতার করেছে ভান্ডারিয়া থানা পুলিশ। গতকাল শুক্রবার দুপুরে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে লক্ষিপুর গ্রামে ভগ্নিপতি রেজাউল খানের বাড়ীতে পুলিশ অভিযান চালিয়ে মাদক বেচাকেনার সময় তাদেরকে গ্রেফতার করে। পুলিশ পরিদর্শক ফরিদ হোসেনের নেতৃত্বে এস আই কইউম, এস এই গোলাম মোস্তফা, এস এই নুরুল আমিন, এ এস আই ফেরদৌস সহ সঙ্গীয় ফোর্স এ অভিযান পরিচালনা করে। এ সময়ে ইকবাল এস আই নুরুল আমীনের হাত কামর দিয়ে পালানোর চেষ্টা করলে নুরু আমিন আহত হয়। তাকে ভা-ারিয়া হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়েছে। ইতিপূর্বে গ্রেফতারকৃত ইকবাল মল্লিক,তার স্ত্রী, বেশ কয়েকবার ফেন্সিডিল সহ গ্রেফতার হয়। বর্তমানে তার ছোট ভাই রাজীব মল্লিক সম্প্রতি ইয়াবা সহ গ্রেফতার হয়ে জেল হাজতে রয়েছে। সম্প্রতি জিআর ১৭৪/২১৭ (ভান্ডারিয়া) মামলায় ইকবাল মল্লিককে ১০ বছর ছয় মাসের সশ্রম কারাদন্ড ও ২০ হাজার টাকা জরিমানা আনাদায়ে আরো ৬ মাসের সাজা প্রদান করে আদালত। এছাড়া তার বিরুদ্ধে ভান্ডারিয়া, রাজাপুর ও কাঠালিয়া থানায় মাদক ও ডাকাতি সহ ৯ টি মামলা রয়েছে। মাদক কারবারী ইকবাল মল্লিক লক্ষিপুরা গ্রামের মৃত রুস্তুম আলী মল্লিকের এবং রেজাউল খান একই গ্রামের মৃত মতিন খানের পুত্র। এ বিষয়ে ভান্ডারিয়া থানার অফিসার্স ইন চার্জ এস এম মাকসুদুর রহমান জানান, প্রায় ২মাস ধরে নজরদারির পর শুক্রবার ধরতে সক্ষম হয়েছি। ইকবাল ও রেজাউলের বিরুদ্ধে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনে আরো একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © 2019